পুঁই শাকের মেঁচড়ি আবাদে স্বাবলম্বী ঝিনাইদহের আমির হোসেন

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়নের বাদপুকুর গ্রামের আব্দুল বারেক মিয়ার ছেলে কৃষক আমির হোসেন পুঁই শাকের মেঁচড়ি আবাদ করে স্বাবলম্বী হয়েছে। তার এ চাষ এলাকার কৃষক ও কৃষি বিভাগের কাছে ব্যপক সাড়া জাগিয়েছে।

আমির হোসেন বলেন, পুঁই শাকের মেঁচড়ি চাষের জন্য শ্বশুর এর কাছ থেকে ১০ শতক জমির বীজ এনেছিলাম ২০১৫ সালে। ১০ শতক জমি আবাদ করে বেশ লাভবান হয়েছিলাম। পরে ২০১৬ সালে ৪০ শতক ও ২০১৭ সালে ৯০ শতক জমিতে আবাদ করি। সে বছরও বেশ লাভবান হয়, যা ধান চাষের তুলনাই তিন গুণ বেশি। এ কারণে চলতি বছর ১২০ শতক জমিতে এই আবাদ করেছি।

তিনি বলেন, ১২০ শতক জমিতে খরচ হয়েছে ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা। ইতোমধ্যে প্রায় ২ লক্ষ টাকার পুঁই শাকের মেঁচড়ি বিক্রয় করেছি। একই জায়গায় ১২০ শতক জমিতে মেঁচড়ি আবাদ করা কৃষক খুব কমই পাওয়া যায়।

পুঁই শাকের মেঁচড়ি আবাদ করে কৃষক আমির হোসেন আজ নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছেন। তিনি অন্য কৃষকদেরও এই চাষে পরার্মশ দিয়ে সাহায্য করেন।


মন্তব্য লিখুন :