ডোমারে শিলাবৃষ্টি আতঙ্কে আধাপাকা ইরি ধান কাটছে কৃষক

দেশের উত্তরের জেলা নীলফামারীর ডোমারে গতবার প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা এবার চলতি ইরি মৌসুমে দুর্যোগের কবল থেকে ফসল বাচাঁতে আগাম আধাপাকা ধান কাটতে শুরু করেছে। ধান পাকতে আরো কয়েকদিন সময় লাগলেও ভয় আর আতঙ্কে কৃষকরা আধাপাকা ইরি ধান কাটছে।

কৃষি বিভাগও ৮০ শতাংশ পাকা ধান কাটার জন্য কৃষকদের পরামর্শ দিয়েছে। গত বছরের ১০ মে ডোমার উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যায় ভয়াবহ ঝড় আর শিলাবৃষ্টি। সেবার ক্ষেত থেকে একমণ ধানও তুলতে পারেনি কৃষক। এবারেও আকাশের অবস্থা খুব একটা ভালো না। যে কোন মুহূর্তে আসতে পারে শিলাবৃষ্টি।

তাই শিলাবৃষ্টি থেকে ক্ষেতের ধান বাঁচাতে কৃষকরা ধান কাটতে শুরু করেছেন। উপজেলা বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এই চিত্র দেখা গেছে। তবে ২৮ জাতের ধান ইতিমধ্যে পেকে গেছে বলে কৃষকরা জানান।

এদিকে ধান কাটতে কামলা সংকট দেখা দিয়েছে এলাকায়। কৃষকরা জানান, এই এলাকায় বেশিরভাগ জমিতে হাইব্রিড জাতের ধান আবাদ করে কৃষক। ক্ষেতের হাইব্রিড জাতীয় ধান পূর্ণাঙ্গভাবে পাকতে আরো কয়েকদিন সময় লাগবে। কিন্তু কৃষকের তর সইছে না প্রাকৃতিক দুর্যোগের ভয়ে দ্রুত ধান ঘরে তুলতে আধাপাকা ধানক্ষেত হতে সংগ্রহ করছে তারা।

এ ব্যাপারে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কামরুজ্জামান বলেন, গত মৌসুমে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে । এবারেও আবহাওয়া ভালো না থাকায় ৮০% ধান পাকলেই কৃষকদের ধান সংগ্রহ করার কথা বলা হয়েছে । তবে ৮০% নিচে কম পাকা ধান কাটলে কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

মন্তব্য লিখুন :