কালবৈশাখীর প্রভাব: দাম বেড়েছে সব ধরনের সবজির

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গত কয়েকদিন ধরে শুরু হয়েছে কালবৈশাখী ঝড়। এর সাথে শিলাবৃষ্টির কারণে নষ্ট হয়েছে ফসলের ক্ষেত। ফলে রাজধানীর বাজারগুলোতে সরবরাহ কমেছে সবজির। এতে সব ধরনের সবজির দাম বেড়েছে বলছেন ব্যবসায়ীরা।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজার ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা যায়।

ক্রেতারা অভিযোগ করে বলছেন, সপ্তাহের ব্যবধানে সব ধরণের সবজির দাম বেড়েছে।

সবজি বাজারের বর্তমান বাজার দর প্রতি কেজি বেগুন ৮০ টাকা, টমেটো ৫০ টাকা,পটল ৪০ টাকা, কলা ২০ টাকা হালি, চাল কুমড়া ৪০ টাকা কেজি, মুলা ৫০ টাকা, ঝিঙ্গা ৪০ টাকা, ক্যাপসিকাম ২৫০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়াও সজনে ডাঁটা ৬০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা, কাঁচা পেঁপে ৩০ টাকা, শিম ৫০ টাকা, করলা ৬০ টাকা, ঢেঁড়স ৪০ টাকা, কচু ৮০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৪০ টাকা কেজি দারে বিক্রি হচ্ছে। 

বাজারে লালশাক ১০ টাকা আটি, কলমি শাক পাঁচ টাকা আটি, পুঁইশাক ২০ টাকা আটি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

এদিকে মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায়, বৈশাখ উপলক্ষে ইলিশের বাজার বেশ চড়া। ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের হালি দুই হাজার ৮০০ টাকা, ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের হালি তিন হাজার ৬০০টাকা এক কেজি ওজনের ইলিশের হালি ছয় হাজার টাকা।

এছাড়া প্রতি কেজি চিংড়ি ৬৫০ থেকে ৭৫০ টাকা, পাবদা মাছ ৪০০ টাকা, টেংরা ৪০০ টাকা, রুই ১৮০ টাকা, সরপুঁটি ১৪০ টাকা, শিং ৫০০ টাকা, বোয়াল ৪০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি গরুর মাংস ৫৫০ টাকা, খাসির মাংস ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

ফার্মের মুরগি ১৬০ টাকা কেজি, পাকিস্তানি মুরগি ২৮০ টাকা কেজি, দেশি মুরগি ৫০০ টাকা কেজি, সাদা কক ২৫০ টাকা কেজি ও টার্কি মুরগি ২৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন :