শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ঘুষ নেয়ায় ইবি কর্মকর্তা বরখাস্ত

শিক্ষার্থীর নিকট থেকে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে মোক্তার হোসেন নামের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) এক কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তিনি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দফতরের শাখা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত।

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী নেয়ামুল কবিরের নিকট থেকে ট্রান্সক্রিপ্ট উত্তোলনের জন্য ৫০০ টাকা উৎকোচ গ্রহণ করেন ওই কর্মকর্তা। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ভিসি বরাবর লিখিত অভিযোগ করলে বিষয়টির প্রাথমিক সত্যতা প্রমাণ পাওয়ায় বুধবার রাতে ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর- রশিদ আসকারী তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। ‘কর্মচারি দক্ষতা ও শৃঙ্খলা বিধির ৩ (ডি)’ ধারা মোতাবেক তাকে প্রাথমিকভাবে এই শাস্তি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও বিষয়টির অধিকতর তদন্তের জন্য ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর ড. মেহের আলীকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ড. আনিচুর রহমান এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দফতরের সহকারী রেজিস্ট্রার আহসানুল হক (সদস্য সচিব)। কমিটিকে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী বলেন, সকল প্রকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমি জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছি। অচিরেই বিশ্ববিদ্যালয়কে দুর্নীতিমুক্ত ঘোষণা করব।

মন্তব্য লিখুন :