মোবাইল চুরির দায়ে ছাত্রলীগ নেতা হল ছাড়া

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে মোবাইল চুরির দায়ে ছাত্রলীগ নেতা কৌশিক রহমান শিমুলকে হল ছাড়া করেছে ওই হলেরই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

কৌশিক বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ৪২ ব্যাচের শিক্ষার্থী। তিনি শাখা ছাত্রলীগের শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক ও ‘মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড’ জাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক।

হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ সূত্র জানায়, সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে হলের ৩৩০ নম্বর কক্ষ থেকে ছাত্রলীগকর্মী ফিরোজ মাহমুদ সরকারের শাওমি নোট ফাইভ ব্রান্ডের একটি মোবাইল ফোন চুরি হয়।

সন্দেহের ভিত্তিতে কৌশিকের কক্ষে খোঁজাখুঁজির সময় তিনি ফোনটি বারান্দার জানালার বাহিরে ছুঁড়তে চেষ্টা করেন। এ সময় ফোনসহ তাকে হাতেনাতে ধরেন ছাত্রলীগের ৫-৬ জন নেতাকর্মী।

ঘটনাটি জানাজানি হলে হলের নেতাকর্মীরা অভ্যন্তরীণ সভায় কৌশিককে হল থেকে বিতাড়িত করার সিদ্ধান্ত নেয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে কৌশিক এখন হল থেকে বিতাড়িত।

অভিযোগকারী ফিরোজ মাহমুদ সরকার তার ফোন চুরি হওয়া ও কৌশিককে হাতেনাতে ধরার বিষয়ের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।অভিযোগের বিষয়ে জানতে কৌশিক রহমান শিমুলের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানা বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। অভিযুক্ত এবং অভিযোগকারী উভয় ছাত্রলীগের সঙ্গে যুক্ত। যদি এমন কিছু ঘটে থাকে তবে আমাকে সেটা জানানো উচিত ছিল। কিন্তু এখনো পর্যন্ত আমাকে কেউ কিছু জানায়নি। আমাকে জানালে বিষয়টা দেখব।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ ফরিদ আহমেদ বলেন, ‘এমন একটি ঘটনা শুনেছি। আমাকে না জানিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দেয়ার কথা শুনেছি। এটা ঠিক হয়নি। সন্ধ্যার পর বসব। তারপর বিস্তারিত জেনে সিদ্ধান্ত নিব।’

মন্তব্য লিখুন :