বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ভিসি’র পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থীরা। 

বুধবার রাত ১২ টার দিকে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে আন্দোলনের কর্মসূচী ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। 

এ সময় শিক্ষার্থীরা ভিসিকে বিএনপির লোক দাবি করে তাঁর বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনিয়মের কথা তুলে ধরে বলেন, এই ভিসি-র মেয়াদে নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকরা জামায়াত-বিএনপির লোক। তাই এ বিশ্ববিদ্যালয়ে জামায়াত-বিএনপি’র ভিসি থাকতে পারবে না। তিনি পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

জানাগেছে, গত ১১ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বহিষ্কারের প্রতিবাদে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকরা আন্দোলন শুরু করেন। সাংবাদিকদের আন্দোলনের মুখে বুধবার জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পরে শিক্ষার্থীদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। 

বিশ্ববিদ্যালয়টির বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, তারা মুক্তভাবে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যেভাবে লেখা পড়া করে তারাও সেভাবেই লেখা পড়া করতে চায়। 

কিন্তু, তাদেরকে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কিন্ডারগার্ডেন স্কুলের শিক্ষার্থীদের মতো করে রেখেছে। কথায় কথায় তাদেরকে বহিস্কার করা হচ্ছে। মনে হয় তারা কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নয়। তারা কোন জেলখানার কয়েদি। তারা এ অবস্থা থেকে মুক্ত হতে চায়। 

আর তাই এক দফা দাবি অর্থাৎ ভিসির পদত্যাগের দাবিতে অনড় রয়েছে। ভিসি পদত্যাগ করলে তবেই কেবল তারা তাদের আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেবে।

মন্তব্য লিখুন :