ছাত্রীকে মা বলে ঘুষ চাইলেন রাবি উপাচার্য, ফাঁস ফোনালাপ!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে প্রভাষক নিয়োগে নির্বাচনী বোর্ডের এক আবেদনকারীকে টাকার বিনিময়ে চাকরি পাইয়ে দেওয়া নিয়ে উপ-উপাচার্য চৌধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়ার কথোপকথন ফাঁস হয়েছে। আবেদনকারীর স্ত্রীর সঙ্গে উপ-উপাচার্যের দর-কষাকষির ওই অডিওতে টাকার বিষয়ে কথা বলতে শোনা যায়।

জানা যায়, সম্প্রতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে তিনটি প্রভাষক পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়। এতে নুরুল হুদা নামে একজন আবেদন করেন। তার স্ত্রীও আইন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। ফাঁস হওয়া অডিওতে তাকে উপ-উপাচার্য জাকারিয়ার সঙ্গে কথা বলতে শোনা যায়।

ফাঁস হওয়া ফোনালাপটি এখানে তুলে ধরা হলো:

উপ-উপাচার্য: হ্যাঁ, তুজ সাদিয়া। আমি প্রফেসর জাকারিয়া, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর।

চাকরিপ্রত্যাশীর স্ত্রী: আসসালামু আলাইকুম, স্যার।

উপ-উপাচার্য: ওয়ালাইকুমুস সালাম। আচ্ছা মা, একটা কথা বলো তো। আমার খুব শুনতে ইচ্ছা, তোমরা কয় টাকা দেওয়ার জন্য রেডি।

চাকরিপ্রত্যাশীর স্ত্রী: স্যার, সত্যি কথা বলতে...

উপ-উপাচার্য: না না, সত্যি কথাই তো বলবা। উপরে আল্লাহতায়ালা, নিচে আমি।

চাকরিপ্রত্যাশীর স্ত্রী: অবশ্যই, অবশ্যই। স্যার, আপনি যেহেতু তার অবস্থা জানেন, আরেকটা বিষয় এখানে স্যার, সেটা হচ্ছে, আপনি হুদার... মানে, এমনিতে সে কতটা স্ট্রিক প্রিন্সিপালের..., আপনি বোধহয় এটাও জানেন স্যার, একটু রগচটা ছেলে।

উপ-উপাচার্য: আচ্ছা রাখো রাখো, এখান থেকে কথা বলা যাবে না।

নিয়োগের জন্য টাকা নিয়ে দর-কষাকষির বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য চৌধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়া বিষয়টি এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, এসব সাজানো। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করবো না। আমি আজ থেকে ফোনে কোনো কথা বলবো না।

মন্তব্য লিখুন :