তবুও চলছে যানবাহন

বগুড়ার ধুনট-শেরপুর পাকা সড়কের মাঠপাড়া গ্রামে গাড়ামারা খালের ওপর বেইলী সেতুর মাঝখানে পাটাতন খুলে গিয়ে দ্বিখন্ডিত হয়েছে। তারপরও ওই সেতুর উপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে বিভিন্ন প্রকার যানবহন।

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে সেতুর ওপর দিয়ে ভারি যানবাহন চলাচল করার সময় পাটাতন খুলে গিয়ে এক ফুট ফাঁকা হয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থার বিপর্যয় ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অর্থায়নে গত ১৯৯২ সালে বগুড়ার ধুনট-শেরপুর পাকা সড়কের মাঠপাড়া গ্রামে একটি খালের ওপর ৬২ মিটার দৈর্ঘ্য বেইলী সেতুটি নির্মাণ করা হয়। নির্মাণের পর থেকে সেতুর উপর দিয়ে অতিরিক্ত মালামাল বোঝাই ভারি যানবহন পারাপার করে। এ কারণে ট্রানজাম ও ষ্টিল টেকিং (পাটাতন) নষ্ট হওয়ায় সেতুটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তারপরও ওই সেতুর উপর দিয়ে অতিরিক্ত মালামাল বোঝাই যানবহন পারাপার হতে থাকে। এ কারণে গত এক বছরে সেতুটি দশ বার পাটাতন ভেঙে গিয়ে যানবহন চলাচল বন্ধ হয়েছে। সওজ কর্তৃপক্ষ বার বার জোড়াতালি দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত সেতুটি মেরামত করেন। কিন্ত সেতুটি বেশী দিন টিকে থাকে না।

এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার আবারোও সেতুর মাঝখানে পাটাতন খুলে ১ ফুট ফাঁকা হয়ে গেছে। বিকল্প কোনো পথ না থাকায় ঝুকিপূর্ণ সেতুর ওপর দিয়ে ঢাকা, রাজশাহীসহ বগুড়ার সাথে ধুনট, সোনাহাটা, মথুরাপুর, জোড়শিমুল, গোসাইবাড়ি, ঢেকুরিয়া ও কাজিপুর উপজেলার যানবাহন চলাচল করছে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, সেতুর উপর দিয়ে ভারি যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়ে সেখানে পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিয়া সুলতানা বলেন, সেতুর পাটাতন খুলে ঝুকিপূর্ণ হওয়ার বিষয়টি সওজ-এর নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানানো হয়েছে।

বগুড়া সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আশরাফুল বলেন, দীর্ঘদিন আগে নির্মিত সেতুর আয়ুকাল শেষ হয়ে গেছে। বেইলী সেতু তৈরীর সরঞ্জামাদি দেশের বাইরে থেকে আমদানি করা হতো। কিন্ত বর্তমানে সরঞ্জামাদি আমদানি বন্ধ থাকায় পুরাতন পাটাতন ব্যবহার করে সেতুটি বার বার মেরামত করা হয়। কিন্ত বেশী দিন টিকে থাকে না। শুক্রবার সকাল থেকে ওই সেতুর মেরামত কাজ শুরু করা হবে।

মন্তব্য লিখুন :