নায়িকা বানানোর লোভ দেখিয়ে ৩ মাস ধরে ধর্ষণ!

টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার এক কলেজ ছাত্রীকে সিনেমার নায়িকা বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে তিন মাস ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। 
রবিবার (১৪ এপ্রিল) ওই কলেজছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। 
এ সময় ধর্ষণের অভিযোগে এসএম আকাশ ওরফে ফারুক শিকদার (২৮) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 
এসএম আকাশ ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী থানার মাইটকুমরা গ্রামের কাইয়ুম শিকদারের ছেলে। 
সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকালে গ্রেপ্তার আকাশকে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠনো হয়েছে। এর আগে রোববার রাতে ওই তরুণীর বাবা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেন।  
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২১ জানুয়ারি সকালে স্থানীয় সংসদ সদস্যের (এমপি) সংবর্ধনা ও নবীনবরণ অনুষ্ঠান থেকে বাড়ি ফিরছিলেন ওই ছাত্রী। পথে মাইক্রোবাসে তুলে তাকে অপহরণ করে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে একটি বাসায় আটকে রেখে সিনেমার নায়িকা বানানোর কথা বলে প্রায় তিনমাস তাকে ধর্ষণ করা হয়। 
এদিকে অপহৃত ওই তরুণীর বোন কৌশলে মোবাইলে যোগাযোগ করে রবিবার দুপুরে তাদেরকে গোপালপুরে নিয়ে যান। এ সুযোগে স্থানীয়রা অভিযুক্ত ধর্ষককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দেয়।
এ বিষয়ে গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। 
ওই ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মূলত নায়িকা বানোনার প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে ওসি মামুন জানান।

মন্তব্য লিখুন :