আমতলীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আহত ১৬

বরগুনার আমতলীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে ১৬ জন আহত হয়েছে। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনা ঘটেছে উপজেলার আড়পাঙ্গাশিয়া বাজারে সোমবার (১ এপ্রিল) রাতে।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আমতলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার সামসুদ্দিন আহম্মেদ ছজুর ঘোড়া প্রতীকের সমর্থক আড়পাঙ্গাশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান একেএম নুরুল হক তালুকদার ও গোলাম ছরোয়ার ফোরকানের আনারস প্রতীকের সমর্থক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি মতিউর রহমানের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় চেয়ারম্যান নুরুল হক তালুকদারের ফুফাতো ভাই দেলোয়ার হোসেন লাঠি নিয়ে গোলাম ছরোয়ার ফোরকানের লোকজনকে ধাওয়া করে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ চলে। এতে উভয় পক্ষে ১৬ জন আহত হয়েছে।

গুরুতর আহত রিয়াজ (২৭), মজিবুর (৩৫), পপিন (৩৫), পলাশ (৩০), হুমায়ূন (৪০), ছদরুল ইসলাম মানিক (কালা মানিক) (৪৫) নিজাম (৫০), আবু বকর (৪০), হাসিব (২৫) ও কামাল মৃধাকে (৪৫) বরিশাল শের-ই-বাংলা ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খরর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক শাহাদাত হোসেন বলেন, পাঁচজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
 
আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচজনকে থানায় আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন :