ডোমারে ভোট নিয়ে ওয়াজে কটূক্তি, প্রতিবাদ করায় লাঞ্চিত আ.লীগ নেতা

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় তাফসিরুল কোরআন মাহফিলে অতিথি আর প্রধান বক্তার বাকবিতণ্ডায় তাফসিরুল কোরআন মাহফিল পণ্ড হয়ে গেছে। এর জেরে লাঞ্ছিত করা হয় অতিথি আওয়ামী লীগ নেতাকে।

মাহফিল শুনতে আসা লোকজন জানান, মাহফিলে প্রধান বক্তা তৈয়বুর রহমান বক্তব্যের এক সময় প্রধান ভোট নিয়ে একটি কৌতুকের গল্প বলেন। এ সময় প্রতিবাদ করেন উপজেলা হাজি কল্যাণ সমিতির সাধারন সম্পাদক ও আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যাপক করিমুল ইসলাম। এতে দুজন বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন।  এর জেরে প্রধান বক্তা বক্তব্য না দিয়েই অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আলহাজ্ব করিমুল ইসলামকে লাঞ্চিত করে মাহফিল শুনতে আসা কিছু শ্রোতা। পরে মাওলানা আব্দুল হামিদ হোসাইনি, সুফি হুজুরসহ আয়োজক কমিটির সদস্যরা মানবঢাল হিসেবে তাকে রক্ষা করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায়। শনিবার বিকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মোল্লা পাড়ায় ঘটনাটি ঘটে। এতে করিমুল ইসলাম প্রাণে বেঁচে গেলেও তাকে বাঁচাতে গিয়ে আয়োজক কমিটির অনেকেই আহত হয়।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় আয়োজক কমিটির অন্যতম সদস্য ও মাহফিলের বিশেষ বক্তা ডোমার ইসলামিয়া সিনিয়র দাখিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ শামছুদ্দিন হোসাইনী (৫০), তার বড়ভাই আয়োজক কমিটির প্রধান মাওলানা আব্দুল হামিদ হোসাইনি (৬০) ও তার ভাগ্নে আনারুল ইসলামকে (৪৫) আটক করে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় পশ্চিম চিকনমাটি মোল্লাপাড়া আমিনিয়া বায়তুল ফালাহ মসজিদ মাহফিল মাঠ হতে তাদের আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে আলহাজ্ব করিমুল ইসলাম বাদী হয়ে ১০ জনের নামে ও অজ্ঞাত আরো ৪০ হতে ৫০ জনকে আসামি করে ডোমার থানায় মামলা দায়ের করেন।

ডোমার থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আয়োজক তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দুপুরেই আটককৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন :