‘বউ হবো, নয় লাশ হবো’

হয় বউ, না হয় লাশ হয়ে প্রেমিকের বাড়ির কবরে যাবেন; এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে এক কলেজ ছাত্রী।

জানাগেছে, কোটালীপাড়া উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলবাড়ী গ্রামের নুরুল হক খন্দকারের ছেলে সেনা সদস্য মিরাজ খন্দকারের সাথে মাদারীপুর জেলার সরকারি নাজিমউদ্দিন কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীর সাথে গত ৩ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল।

গত বৃহস্পতিবার মিরাজ খন্দকার ওই ছাত্রীকে ফোন দিয়ে তার বিয়ের কথা জানায়। ওইদিনই কলেজ ছাত্রী মিরাজ খন্দকারের বাড়িতে এসে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয়। সাথে সাথে মিরাজ বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এরপরই ভন্ডুল হয়ে যায় মিরাজের বিয়ে।

মিরাজ খন্দকারের বাড়িতে অবস্থানকারী ওই ছাত্রী জানান, মিরাজের বাড়ির পাশেই তার মামা ও খালার বাড়ি। এখানে আসা যাওয়ার সুবাদে মিরাজের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক হয়। সে বর্তমানে রাঙ্গামাটি ক্যান্টনমেন্টে কর্মরত আছে। এখান থেকে ছুটিতে এসে বিভিন্ন সময়ে মিরাজ তাকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক জড়ায়। তবে এখন বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে।

মিরাজ যদি এখন আমাকে বিয়ে না করে তাহলে এই বাড়িতেই আমি আত্মহত্যা করার ঘোষণাও দেয় সে।

এ বিষয়ে মিরাজের বাবা নুরুল হকের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনো প্রকার মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে, স্থানীয় রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অমৃত লাল হালদার বলেন, শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত ছেলে এবং মেয়ে পক্ষ মিলে বিষয়টি নিয়ে সামাজিকভাবে বসেছিল। শুনেছি উভয়পক্ষই ছেলে-মেয়ের বিয়ে দিতে একমত হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন :