প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর মামলা, হুমকির মুখে আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ

বরগুনার আমতলী উপজেলার নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম ছরোয়ার ফোরকানের বিরুদ্ধে ঋণ খেলাপীর তথ্য গোপনের অভিযোগে বরগুনা যুগ্ম জজ আদালত ও নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা হয়েছে।

রবিবার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আলহাজ্ব সামসুদ্দিন আহম্মেদ ছজু এ মামলা দায়ের করেছেন।

আদালতের বিচারক ইসমাইল হোসেন মামলাটি আমলে নিয়ে গোলাম ছরোয়ার ফোরকানের উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ গ্রহণের কার্যক্রম কেন স্থগিত করা হবে না এইমর্মে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে তাকে (ফোরকান) কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার বিবরণ সূত্রে জানাগেছে, আমতলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন গত ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হয়। এতে চেয়ারম্যান পদে আলহাজ্ব গোলাম ছরোয়ার ফোরকান বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন আলহাজ্ব সামসুদ্দিন আহম্মেদ।

ফোরকান পটুয়াখালী পৌরসভাধীন বনানী সড়কে মেসার্স বনানী ট্রেডার্স ও মেসার্স রূপালী ট্রেডার্স নামে দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক থাকিয়া ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। ওই ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য পটুয়াখালীর সম্পত্তি ও উপরোস্থ্ স্থাপনা মর্গেজ রেখে পটুয়াখালী রূপালী ব্যাংক লিমিটেড নিউ টাউন শাখায় গোলাম ছরোয়ার, বনানী ট্রেডার্স এবং রুপালী ট্রেডার্সের নামে ঋণ গ্রহণ করেন। তার নামে এবং প্রতিষ্ঠানের নামের ঋণ তিনি পরিশোধ করেনি। এতে তিনি ঋণ খেলাপীর তালিকায় অর্ন্তভুক্ত হন।

গত ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে গোলাম ছরোয়ার ফোরকান মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। ওই মনোনয়নপত্রে তার হলফনামায় তিনি ঋণ খেলাপীর তথ্য গোপন করে মনোনয়পত্র দাখিল করেন।

তিনি তথ্য গোপন করে হলফনামা দাখিল করায় নির্বাচনী আইন লঙ্ঘন করেছেন এবং রির্টানিং অফিসারের সাথে যোগসাজসে তিনি তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণ করেছেন। এ অভিযোগ এনে সামসুদ্দিন রবিবার ফোরকানকে প্রধান আসামি করে ১০ জনের নামে বরগুনা যুগ্ম জজ আদালত ও নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন।

আলহাজ্ব সামসুদ্দিন আহম্মেদ ছজু বলেন, গোলাম ছরোয়ার ফোরকান একজন ঋণ খেপালী। তার বিরুদ্ধে পটুয়াখালী অর্থ ঋণ আদালতে মামলা রয়েছে। তিনি তার মনোনয়ন পত্রের হলফনামায় ঋণ খেলাপীর তথ্য গোপন করে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।রির্টানিং অফিসারের সাথে যোগসাজসে তিনি তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেছে। তাই তার গেজেট বাতিল করে আমাকে বিজয়ী ঘোষনা করার দাবি জানাই।

মামলার প্রধান আসামী নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম ছরোয়ার ফোরকান আদালতের নোটিশ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে বলেন, আমি আইনের প্রতি =শ্রদ্ধা রেখে মঙ্গলবার আদালতে প্রয়োজনীয় নথিপত্রসহ আইনজীবীর মাধ্যমে কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দেব।  

সামসুদ্দিন আহম্মেদ ছজুর আইনজীবী জগদীশ চন্দ্র শীল বলেন, গোলাম ছরোয়ার ফোরকান হলফনামায় ঋণ খেলাপীর তথ্য গোপন করে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এটা বে-আইনি। তাই আদালতের বিচারক গোলাম ছরোয়ার ফোরকানের উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ কার্যক্রম কেন স্থগিত করা হবে না এই মর্মে তাকে (ফোরকান) ২৪ ঘন্টার মধ্যে কারন দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন :