আ’লীগের প্রার্থী বাছাই সভায় যুবলীগ নেতা লাঞ্ছিত

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাই কার্যক্রমে হট্টগোল ও হাতাহাতির ঘটনায় লাঞ্ছিত হয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির তালুকদার।

সোমবার উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার বিবৃতি দিয়ে আ’লীগের নেতাকর্মীরা জানান, পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য দলের কাউন্সিলরদের ভোট গ্রহণের আয়োজন করা হয়।

সে অনুযায়ী সকাল ১১টা থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের পক্ষে আলাদাভাবে মিছিল নিয়ে কাউন্সিলর ও নেতাকর্মীরা জড়ো হতে শুরু করে।

একপর্যায় সাড়ে ১১টায় একটি মিছিল নিয়ে দলের কিছু নেতাকর্মী অনুষ্ঠানস্থলে অবস্থান নেয়ার সময় জায়গা না দেয়ায় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির তালুকদারকে পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে শার্ট ধরে টানাহ্যাঁচড়া করে তাকে লাঞ্ছিত করে তারা। এ সময় হাতাহাতিও হয়।

লাঞ্ছিত হওয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির তালুকদার বলেন, ‘রাঙ্গাবালী ইউপি চেয়ারম্যান মামুন এসে প্রথমে পেছন দিয়ে আমাকে কয়েকটা ধাক্কা দেয়। পেছনে ফিরে আমিও ওকে ধরি। এরপরই আমার শার্ট ধরে অহেতুক ঝামেলা করে।’

এদিকে বিষয়টি অস্বীকার করে রাঙ্গাবালী ইউপি চেয়ারম্যান ও গলাচিপা ডিগ্রি কলেজের সাবেক ভিপি সাইদুজ্জামান মামুন বলেন, ‘দলের মধ্যে হুমায়ুন দীর্ঘদিন ধরে গ্রুপিং সৃষ্টি করে রেখেছে। এ কারণে দলের লোকজন ওর ওপর ক্ষিপ্ত ছিল। তাই দলের লোকজন হুমায়ুনকে গণমারধর করেছে।’

এদিকে পরিবেশ উত্তপ্ত হয়ে গেলে জায়গা পরিবর্তন করে সাড়ে ১২টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য কাউন্সিলরদের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় ২১২ কাউন্সিলরের মধ্যে ১৯৪ জন উপস্থিত হয়ে ভোট দেন।

এতে ১০৬ ভোট পেয়ে উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন প্রথম হয়েছেন। আর ৫১ ভোট পেয়ে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল ইসলাম লিটু দ্বিতীয় এবং ৩৭ ভোট পেয়ে রাঙ্গাবালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবুল হোসেন আবু তৃতীয় হয়েছেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এমপি মহিব্বুর রহমান মহিব ও পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী আলমগীর প্রমুখ।

এদিকে, এঘটনার পর বিচ্ছিন্ন আরেক ঘটনায় হুমায়ুন কবির তালুকদারের ভাইয়ের ছেলে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খালিদ বিন ওয়ালিদ তালুকদারকে লাঞ্ছিত করে দলের কয়েকজন কর্মী।


মন্তব্য লিখুন :