কুষ্টিয়ায় হত্যার দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় শিউলী খাতুন হত্যা মামলায় অভিযুক্ত আসামি সোহেল রানাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। 

বুধবার (১৫ মে) সকালে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী এ আদেশ দেন। এছাড়া ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাস সশ্রম কারাদণ্ড আদেশ দেয় আদালত।

দন্ডপ্রাপ্ত আসামি সোহেল রানা মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার মিনাপাড়া গ্রামের ইমান আলীর ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর এলাকার তৈয়ব আলীর মেয়ে শিউলী খাতুন কুষ্টিয়া শহরের কলেজ মোড় এলাকায় গণপূর্ত অধিদফতরের কোয়ার্টারে তাওহীদা বানু নামে এক মহিলার বাসায় ভাড়া থাকাকালীন সময়ে ভাড়া বাসার পাশেই কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের খেলার মাঠ থেকে ২০১৭ সালের ১৯ জুলাই সকালবেলা তার লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ। এই ঘটনায় নিহত শিউলী খাতুনের ভাই শিমুল হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৩, তারিখ- ১৯/০৭/২০১৭ইং।

মামলার তদন্তে পুলিশ শিউলী খাতুন হত্যাকাণ্ডে আসামি সোহেল রানার জড়িত থাকার প্রমাণ পেলে ২০১৮ সালের ১৫ জানুয়ারি সোহেল রানাকে একমাত্র আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। দীর্ঘ শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত আজ এই রায় প্রদান করেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন কুষ্টিয়া জজ কোর্টের পিপি অ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী এবং আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাড. আসাদুজ্জামান খান।

মন্তব্য লিখুন :