ময়মনসিংহে মাছ ধরতে বাধা দেওয়ায় হামলার অভিযোগ

পুকুরে মাছ ধরতে বাধা দেওয়ায় ময়মনসিংহের পরাণগঞ্জ ইউনিয়নের বীর বওলা গ্রামে লিয়াকত আলীর বাড়ি-ঘরে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে রফিকুল ইসলাম বাহিনীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় লিয়াকত আলীর ছেলে সাদ্দাম হোসেন কোতোয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

গতকাল (১৪ মে) দুপুরে বীর বওলা গ্রামের লিয়াকত আলীর পুকুরে বীর বওলা সরকার বাড়ির রফিকুল ইসলাম জাল নিয়ে মাছ ধরতে যায়। পরে লিয়াকত আলীর লোকজন মাছ ধরতে তাদেরকে বাধা দেয়।

এ ঘটনার জেরে মঙ্গলবার বিকালে রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে মো.মোতালেব, ইসমাঈল হোসেন, মানিক মিয়া, ফখরুল ইসলাম, ছহর উদ্দিন, কামরুল ইসলামসহ ৩০-৪০ জন লিয়াকত আলীর বাড়িতে ঢুকে ঘরের মধ্যে থাকা আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট করে।

এ সময় বাধা দিতে দিয়ে কয়েকজন আহত হয়। এছাড়া বাড়ির সীমানায় থাকা কয়েকটি ফলজ গাছ কেটে ফেলে রেখে যায় তারা।

লিয়াকত আলী বলেন, আমাদের পুকুর থেকে রফিকুল ইসলাম এবং তাদের লোকজন প্রায়ই মাছ মেরে নিয়ে যায়। বাধা দেওয়ায় আমার বাড়িতে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়েছে। ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করছি।

এ বিষয়ে রফিকুল ইসলাম এবং তাদের লোকজনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের পাওয়া যায়নি।

কোতোয়ালী মডেল থানার এস আই মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, লিয়াকত আলীর বাড়িতে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন :