পাবনায় শাশুড়িকে হত্যার অভিযোগ পুত্রবধূর বিরুদ্ধে

পারিবারিক বিরোধের জেরে শাশুড়ি রোজী খাতুনকে (৩৫) কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পুত্রবধূ রুকাইয়া খাতুনের (২২) বিরুদ্ধে। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রুবাইয়াকে আটক করেছে।

শনিবার (১৮ মে) ইফতারের পর পাবনা সদর উপজেলার মালিগাছা ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহত রোজী খাতুন মৃত আমিন উদ্দিনের স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী।

নিহতের ভাই ইদ্রিস আলীসহ গ্রামাবাসীরা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় রুকাইয়ার বাপের বাড়ি থেকে কয়েকজন লোক তার শ্বশুর বাড়িতে আসে। এ সময় তার স্বামী রনজু বাড়িতে ছিলেন না। হঠাৎ ওই বাড়ি থেকে চিৎকারের শব্দ শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে যায়।

এ সময় তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন রোজি খাতুন ঘরের মধ্যে পড়ে আছে। তখন রোজী খাতুনের শরীর থেকে প্রচুর রক্ত ঝড়ে মেঝেতে পড়েছে। খবর পেয়ে স্বজনেরা দ্রুত উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক রোজী খাতুনকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় নিহত রোজী খাতুনের স্বজনেরা লাশ বাড়ি নিয়ে আসে।

প্রতিবেশীদের দাবি, গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করলে প্রচুর রক্ত বেরুনোর কথাই না। পাশাপাশি গলার নীচ থেকে কয়েক স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। তাদের অভিযোগ পরিকল্পিতভাবেই এই হত্যা করা হয়েছে।

পাবনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আসাদুজ্জামান জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতের গলায় দাগ আছে। তবে হত্যা না আত্মহত্যা এখনই বলা সম্ভব হচ্ছে না।

মন্তব্য লিখুন :