ঈশ্বরদীতে মাদক ব্যবসায়ীসহ দুইজনের মরদেহ উদ্ধার

পাবনার ঈশ্বরদীতে মাদক ব্যবসায়ীসহ দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, নিহতদের মধ্যে একজন পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী ও আরেকজন মাদকসেবী।

শনিবার (২৫ মে) সকালে এই দুই মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, ঈশ্বরদী পৌর সদরের চারা বটতলা গোকুলনগর মহল্লায় জনৈক লাভলু'র নির্মাণাধীন ভবনের ভেতর থেকে শনিবার সকালে আলতাফ মন্ডল (৫৫) নামে এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত আলতাফ পৌর সদরের স্কুলপাড়া মহল্লার মৃত আবেদ আলী মন্ডলের ছেলে।

পুলিশের দাবি, নিহত আলতাফ পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের একজন। তার বিরুদ্ধে থানায় ১২টি মাদক মামলা রয়েছে। মাদক ব্যবসা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে হত্যা করেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

অপরদিকে, উপজেলার চকনারিচা বাগবাড়িয়া গ্রামে শাকিব হোসেন (২০) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত শাকিব ওই গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে।

ওসি বাহাউদ্দিন ফারুকী জানান, বাবার সাথে মায়ের ডিভোর্সের পর শাকিব তার মায়ের সাথে নানার বাড়িতে থাকতো। শুক্রবার (২৪ মে) সন্ধ্যায় বন্ধুদের সাথে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর আর ফিরে আসেনি। শনিবার (২৫ মে) সকালে বাড়ির পাশে পুকুরপাড়ে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশের দাবি, নিহত শাকিব মাদকসেবী ছিল। শরীরে আঘাতের চিহ্ন নেই, তবে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা পুলিশের।

মরদেহ দু'টি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এসব ঘটনায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান ওসি।

মন্তব্য লিখুন :