পুঠিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ আটক ২

রাজশাহীর পুঠিয়ায় পুলিশের কাজে বাধা দেয়া ও লাঞ্চিত করার অভিযোগে ভালুকগাছি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি তাকবীর হাসানসহ দুজনকে আটক করেছেন পুলিশ।

আটককৃতদের শুক্রবার (৩১ মে) সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাকিল উদ্দীন আহম্মেদ বলেন, পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার (৩০ মে) রাতে চেয়ারম্যান তাকবির হাসান ও তার এক সহযোগী নুরুনবীকে থানায় আনা হয়। পুলিশের প্রাথমিক তদন্ত ও আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে ওই ঘটনার সাথে তাদের ইন্ধন পাওয়া গেছে।

তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে চেয়ারম্যানের নির্দেশে এলাকার লোকজন আইনি কাজে বাধা ও পুলিশ সদস্যদের লাঞ্চিত করেছে। তবে আটককৃতদের আরো জিজ্ঞাসাবাদ করতে আদালতে রিমান্ড চাওয়া হবে।

তবে ভালুকগাছি ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি তাকবীর হাসান বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। পুলিশ আমাকে অহেতুক মিথ্যা অপবাদে আটক করেছেন। আমি ওই ঘটনার সাথে জড়িত নাই।

উল্লেখ্য, গত ২৬ মে গভীর রাতে উপজেলার ভালুকগাছি ইউনিয়নের হাড়গাতি গ্রামে এক স্কুলছাত্রীর সাথে অনৈতিক কাজের সময় হায়দার আলী নামের একজনকে হাতেনাতে আটক করেন গ্রামবাসী। সে সময় হায়দার আলীর অপর দু’সহযোগীকেও আটক করা হয়। পুলিশ খবর পেয়ে আটককৃতদের থানায় আনতে যায়। সে সময় মসজিদের মাইকিং করে গ্রামের লোকজন পুলিশ সদস্যদের সারারাত অবরোধ করে রাখে। পরে সকালে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৪ জনের নামে ও আরো ১৫/২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য লিখুন :