ট্রেনের সিডিউল পুরোপুরি ঠিক হওয়া সম্ভব নয়: জিএম পশ্চিমাঞ্চল

ঈদের আগে ট্রেনের সিডিউল পুরোপুরি ঠিক হওয়া সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন পশ্চিমাঞ্চল রেলের মহাব্যবস্থাপক খন্দকার শহীদুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী রেল স্টেশনে জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন পশ্চিমাঞ্চল রেলের মহাব্যবস্থাপক খন্দকার শহীদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, রেলপথের সক্ষমতা অনুযায়ী প্রতিদিন ২২টি ট্রেন চলতে পারে। সেখানে চলাচল করে ৫০টি ট্রেন। এমন বাস্তবতায় সিডিউল হেরফের হয়। এ সমস্যা সমাধানে নতুন রেলপথ নির্মানের কাজ হাতে নেয়া হয়েছে।

শহীদুল ইসলাম আরও বলেন, গত ১০ জুলাই রাজশাহীর চারঘাটের দিগলকান্দি এলাকায় তেলবাহী ট্রেনের ৮টি ওয়াগন লাইনচ্যুতের ঘটনায় তদন্ত শেষ হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। স্লিপারের ক্লিপ ঢিলা থাকায় এ দুর্ঘটনার মুখ্য কারণ। এর জন্য রেল কর্মীদের গাফলতি রয়েছে বলে জানান তিনি।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন উল্লেখ্য করা হয় রেলের কয়েকজন কর্মী, ম্যাট ও প্রকৌশলীর গাফিলতির জন্য দুর্ঘটনাটি ঘটেছিল। তদন্ত প্রতিবেদন অনুয়ায়ী তাদের বিরুদ্ধে বিভাগের সর্বোচ্চ কর্মকর্তাকে শাস্তিমূলক বদলি করা হয়েছে। সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে একজন সহকারী প্রকৌশলীও। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী মৃণাল কান্তি বণিক, প্রধান সংকেত প্রকৌশলী অসিম কুমার তালুকদার, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মাসাদুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন :