পিরোজপুরে তরুণীকে তুলে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় এক তরুণীকে (১৯) ক্লিনিকের ছাদে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় গতকাল রবিবার রাতে নির্যাতিত গৃহকর্মী বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা করেছেন। তবে পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

মামলায় দাউদখালী গ্রামের আফজাল খানের ছেলে সুমন খান, ছালাম হাওলাদারের ছেলে ইমরান হাওলাদার ও জিয়াম হাওলাদারের ছেলে রাজু হাওলাদারকে আসামি করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দাউদখালী গ্রামের ওই গৃহকর্মী পার্শ্ববর্তী দেবত্র গ্রামের এক বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করেন। গত শুক্রবার ওই বাড়িতে কাজ করতে যাওয়ার সময় আসামিরা মেয়েটিকে মুখ চেপে একটি ক্লিনিকের ছাদের উপর নিয়ে যায়। সেখানে বখাটে ইমরান হাওলাদার মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। পরে সুমন খান ও রাজু হাওলাদার মেয়েটিকে সারারাত পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

রাত দেড়টার দিকে মাছ ধরতে যাওয়া এক লোক আসামিদের কথা শুনে সন্দেহ হলে ছাদে গিয়ে টর্চলাইট মারলে আসামিরা পালিয়ে যায়।

মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, গৃহকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। আসামি গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন :