আন্দোলন-সংগ্রাম করেও সড়ক পেল না ডোমারবাসী

নীলফামারীর ডোমার উপজেলার ডোমার-দেবীগঞ্জ সড়কটি ডোমার বাসীর অভিশাপে পরিণত হয়েছে। প্রধান সড়কটি বর্তমানে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় মানুষজনকে ভোগান্তীতে পড়তে হচ্ছে।

সড়কটি সংস্কারের দাবিতে ডোমারের বিভিন্ন সংগঠন মানববন্ধন, অবরোধ, স্মারকলিপিসহ নানা কার্যক্রম চালিয়ে আসলেও সড়কটি সংস্কার করা হচ্ছে না।

জানাগেছে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের এই সড়কটির প্রায় শতভাগ রাস্তা খনাখন্দে ভরে এক একটা ডোবায় পরিণত হয়েছে। গত দুইমাস আগে রাস্তা সংস্কারের দাবিতে ডোমারের সংগঠনগুলো আন্দোলনে নামলে তখন সড়ক ও জনপথ বিভাগের নীলফামারী জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী জানিয়েছিল আগামী সাত দিনের মধ্যে রাস্তার কাজ শুরু হবে। মানুষজন তার বক্তব্যে কিছুটা স্বস্তি পেলেও রাস্তার কাজ শুরু হয়নি।

এদিকে, রাস্তার এই বেহাল দশার মধ্যেও চলাচল করছে দশ চাকার ভারী যানবাহন। দশ চাকার ভারী যানবাহন চলাচল করায় প্রধান সড়কটি বড় বড় খালে পরিণত হয়েছে। ফলে রাস্তার মধ্যে উল্টে যাচ্ছে ছোট-বড় যানবাহনগুলো।

বর্তমানে রাস্তার বেহাল দশার কারণে ট্রাকের মালিকরা বাশঁ নিতে অপরাগতা প্রকাশের পাশাপাশি ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছে। ফলে নিরুপায় হয়ে কয়েকহাজার টাকা বাড়িয়ে ট্রাক ভাড়া করতে হচ্ছে যা ব্যবসায়ে লোকসান হচ্ছে। রাস্তার পাশে ছোট-বড় ব্যবসায়ীরা পড়েছে সবচেয়ে বিপাকে। রাস্তার সড়কগুলো পানিতে ভরে থাকায় মানুষজন আর ওইসব দোকানে আসছে না।

অন্যদিকে ডোমার পৌরসভায় পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় রাস্তাগুলো বেশি করে ভেঙে যাচ্ছে। ফলে ডোমারের প্রধান সড়কটি অভিশাপেই পরিণত হয়েছে ডোমারবাসীর জন্য।

মন্তব্য লিখুন :