বগুড়ায় স্ত্রীকে মারধর করে প্রভাষক কারাগারে

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতনের মামলায় সোনাতলা সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইংরেজি বিষয়ের প্রভাষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার সিহাব উদ্দিন দক্ষিণ আটকরিয়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে। তাকে কারাগারে প্রেরণ করার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

মামলার বিবরণ অনুযায়ী, ২০১৬ সালের ১২ জানুয়ারি বালুয়া ইউপির উত্তর দিঘলকান্দি (বালুয়াপাড়া) গ্রামের ফারাজুল ইসলামের মেয়ে মোছা. ফারজানা ফেরদৌসী (তুবা) বেগমকে বিয়ে করেন সিহাব উদ্দিন। বিয়ের সময় তুবার বাবা মেয়ের জামাইকে নগদ দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা, স্বর্ণের গহনা ও আসবাবপত্র দেয়। এরপরও সিহাব ও তার পরিবার যৌতুকের জন্য তুবাকে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল।

একপর্যায়ে যৌতুকের টাকার জন্য গত বৃহস্পতিবার সিহাব ও তার পরিবারের লোকজন তুবা বেগমকে মারধর করে ঘরে আটক রাখে। সংবাদ পেয়ে তুবার পরিবার বিষয়টি থানায় জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তুবাকে উদ্ধার ও সিহাবকে আটক করে। ওই রাতেই তুবাকে সোনাতলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এসআই জহুরুল ইসলাম বলেন, সিহাবসহ সাতজনকে আসামি করে মামলা করেছেন ভিকটিম। ওই মামলায় প্রভাষক সিহাবকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তুবা সোনাতলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

মন্তব্য লিখুন :