তাহিরপুরে ভাঙা সড়কে চরম দুর্ভোগ

সড়ক ভাঙা থাকায় বিপাকে পড়েছে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বালিজুড়ী ইউনিয়নের দক্ষিনকুল মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ১০টি গ্রামের বাসিন্দারা।

আনোয়াপুর-দক্ষিনকুল-হোসেনপুর ৩ কিলোমিটার সড়কের কারণে এই দুর্ভোগ। প্রতি বছরেই এই সড়কের বিভিন্ন অংশে পাহাড়ী ঢল ও বিভিন্ন কারণে ভাঙনের ফলে ১০টি গ্রামের শিক্ষার্থীসহ জনসাধারণ চরম দুর্ভোগের মধ্যে আছে। এই বিষয়ে ব্যবস্থাও নিচ্ছে না কেউ

কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, এ সড়কটি যদি ভাল ভাবে তৈরী করা হয় তাহলে বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করবে। আমাদের স্কুলে যাতায়াতে অনেক সুবিধা হবে।

স্থানীয়রা জানান, এই সড়কটি দিয়ে হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। কিন্তু সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ভাঙনের কারণে কোন ধরনের যানবাহন চলাচল করে না। ফলে উপজেলা, জেলা সদরে ও হাট বাজার করার জন্য বাজারে যেতে হলে আনোয়ারপুর বাজার পর্যন্ত পায়ে হেঁটেই যেতে হয়। জরুরী প্রয়োজনে কোনো রোগী নিতে হলে আমাদের গ্রামগুলো থেকে কষ্টের সীমা থাকে না।

উপজেলার অন্যান্য সড়কের মেরামত করা হলে বারবার এ সড়কটির বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবার দাবি জানানোর পরও কোনো কাজ হচ্ছে না।    

স্বাধীনতার পর ৪৮ বছরে সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।

বালিজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান বাবুল মিয়া জানান, মাহতাবপুর, পিরিজপুর গ্রামের মানুষ বৌলাই নদী পার হয়ে এ সড়ক দিয়ে আনোয়রপুর বাজার ও উপজেলা, জেলা সদরে যাতায়াত করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। এছাড়াও ফাজিলপুর, নোহাহাট, হোসেনপুর, সীমানা, দক্ষিনকুল গ্রামের মানুষের একই অবস্থা।

তিনি জানান, ভাঙা অংশে মাঝে মাঝে মেরামত করা হয়। তবে কিছুদিনের মধ্যেই আবার আগের অবস্থায় ফিরে যায়। তিনি এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবেন বলে জানান।

মন্তব্য লিখুন :