আবরারের পরিবারকে জামায়াত-শিবির বলিনি: কুষ্টিয়া এসপি

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদের পারিবার জামায়াত-শিবির বলে কুষ্টিয়া পুলিশ সুপার (এসপি) এসএম তানভীর আরাফাতের যে বক্তব্য গণমাধ্যমে প্রচার হচ্ছে- তা মিথ্যা বলে দাবি করা হয়েছে।

এসএম তানভীর আরাফাত স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমন দাবি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কিছু কিছু গণমাধ্যম পুলিশ সুপার, কুষ্টিয়ার উদ্ধৃতি দিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির লক্ষে প্রচার করছে যে, আবরার ফাহাদের পরিবার জামায়াত-শিবির। কিন্তু তিনি সেখানে কোনো বিষয়ে বক্তব্য দেননি। কিছু স্বার্থান্বেষী মহল অতিরঞ্জিত করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল ও পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার জন্য এসব মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে, যা অনাকাঙ্খিত ও অনভিপ্রেত।

প্রসঙ্গত, রবিবার (৬ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরে বাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) নিয়ে যান। সোমবার সকাল ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

গতকাল আবরারের কবর জিয়ারত ও তার পরিবারের সাথে দেখা করতে যান বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভিসি সাইফুল ইসলাম। তিনি কবর জিয়ারত করলেও আবরারের বাড়ি যাওয়ার পথে গ্রামবাসীর প্রতিরোধের মুখে পড়েন।

এ সময় পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশ লাঠিচার্য করে। যাতে আবরারের ছোট ভাই ও ভাবীসহ তিনজন আহত হয়। যদিও পুলিশ সুপার গণ্ডগোলের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

মন্তব্য লিখুন :