উইলিয়ামসের ব্যাটে এগিয়ে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ে

সাদা বলের ক্রিকেটে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করার পর আজ লাল বলের ক্রিকেটীয় লড়াইয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এই ম্যাচে টস হেরে বোলিংয়ে নেমে স্পিনার তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণিতে শুরুতে বিপদে পড়লেও সেন উইলিয়ামসের ব্যাটে চড়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ে।

আজ শনিবার (৩ নভেম্বর) ম্যাচের প্রথম দিনে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে ৬৯ ওভারে ১৭৪ রান তুলেছে। তারা উইকেট হারিয়েছে চারটি। শন উইলিয়ামস ৬৭ ও পিটার মুর ১৬ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

ব্রায়ান চারি ব্যক্তিগত ১৩ রানে সাজঘরে ফিরেন। তাঁকে সরাসরি বোল্ড করেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম।  বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে পারেননি অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন টেইলরও। ব্যক্তিগত ৬ রানে আউট হন তিনি। তিনিও তাইজুলের শিকার। 

এরপর শন উইলিয়ামসকে নিয়ে দলকে টেনে নিচ্ছিলেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। তবে লাঞ্চের ঠিক পরপরই তাকে ফিরিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপদ আরও একটু বাড়ান আবু জায়েদ রাহী। তবে মাসাকাদজা ফেরার আগে ১০৫ বলে ৫২ রানের দারুণ একটি ইনিংস খেলেছেন।

এরপর সিকান্দার রাজাকে নিয়ে বিপদ কিছুটা সামাল দেন সেন উইলিয়ামস। ১৯ রান করে সিকান্দার রাজা অপুর শিকার হলে আবারও বিপদে পড়ে জিম্বাবুয়ে। তবে উইরিয়ামস এককপ্রান্ত আগলে রেখে ব্যাট করায় এখন বেশ ভালো অবস্থানেই আছে সফরকারীরা।

এই ম্যাচের মধ্যদিয়ে দেশের অষ্টম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে অভিষেক ঘটল সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের। অভিষেক টেস্টকে স্মরণীয় করে রাখতে টস হয়েছে বিশেষ কয়েনে। টসের সময় বিশেষ স্মারকও উপহার দেওয়া হয় দুই দলের অধিনায়ককে।

নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নেই। নেই তামিম ইকবালও। মাশরাফি তো আগে থেকেই টেস্ট ক্রিকেটে নেই। সুতরাং, পঞ্চপাণ্ডবের তিনজনই নেই। রয়েছেন কেবল মুশফিকুর রহীম আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাকিরা সবাই নতুন। এই নতুনের আবাহন নিয়ে এবার সিলেটে জিম্বাবুইয়ানদের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ।

ম্যাচের বাংলাদেশ একাদশে এক সঙ্গে দুই ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। তারা হলেন- অলরাউন্ডার আরিফুল হক ও স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপু।

আরিফুল চলমান সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নামেন। এবার সিলেটে টেস্ট ম্যাচেও অভিষেক হয় তার।

আর অপু এর আগে পাঁচটি ওয়ানডে খেলে নিজের যোগ্যতার ভালোই প্রমাণ দিয়েছেন। তাই টেস্টে ক্রিকেটেও অভিষেক হয় তাঁর।

দীর্ঘদিন পর টেস্ট দলে ফিরেছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত। গত বছর জানুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট খেলেছিলেন তিনি। সে ম্যাচের দুই ইনিংসেই খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। তাই দলে জায়গা হারান।

মোস্তাফিজুর রহমানকে বিশ্রামে রাখায় এই ম্যাচে পেস বোলিংয়ের দায়িত্বভার পড়বে আবু জায়েদ রাহি এবং আরিফুল হকের কাঁধে।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাজমুল ইসলাম অপু, আবু জায়েদ রাহি।  

জিম্বাবুয়ে একাদশ: হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, ব্রায়ান চারি, ব্রেন্ডন টেইলর, শন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, রেজিস চাকাভা, ব্র্যান্ডন মাভুটা, কাইল জার্ভিস, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, টেন্ডাই চাটারা।

মন্তব্য লিখুন :