নিষিদ্ধ হতে পারেন হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুল

একটি টিভি শোতে নারীদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য করায় ভারত জাতীয় দলের দুই ক্রিকেটার হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলকে শোকজ করেছিল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। পান্ডিয়ার শোকজের জবাব পেছন্দ হয়নি সিওএ চেয়ারম্যানের। আরকে খেলোয়াড় রাহুল তার জবাবই দেননি। এর জেরে দুই ক্রিকেটারকে নিষিদ্ধ করতে পারে দেশটির ক্রিকেট সংস্থা।

ভারতীয় মিডিয়া সূত্রে জানাগেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আসন্ন ওয়ানডে সিরিজে দুটি ম্যাচের জন্য নির্বাসিত হতে পারেন রাহুল ও পান্ডিয়া। ভারতীয় দলের এই দুই ক্রিকেটারের নির্বাসনের পক্ষে কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর প্রধান বিনোদ রাই।

তবে সিওএ সদস্যা ডায়না এডুলজি সমস্ত বিষয় পর্যালোচনা করে তবেই রাহুল-পান্ডিয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানা গেছে।

‘কফি উইথ করণ’ নামের জনপ্রিয় টিভি শোতে গিয়ে হার্দিক বলেন, কোনো ক্লাবে গেলে আমি মেয়েদের নামও দেখি না। একটি মেয়েকে যে মেসেজ পাঠাই, সেই মেসেজই অন্য মেয়েদের পাঠিয়ে দিই।” নিজের যৌনজীবন নিয়ে বলতে গিয়ে হার্দিক জানান, তার বাবা-মা তার কাছে বন্ধুর মতো। নিজের প্রথম শারীরিক সম্পর্কের কথাও মাকে জানিয়েছিলেন তিনি। প্রথমবার শারীরিক সম্পর্কের পর টিম ইন্ডিয়ার তারকা অলরাউন্ডার নাকি তার মাকে এসে বলেছিলেন, “মা আজ ম্যায় কার কে আয়া…।” (আজ আমি শারীরিকভাবে মিলিত হয়েছি।)

হার্দিকের এই মন্তব্য ভালোভাবে নেননি নেটিজেনরা। বিশেষ করে মহিলারা, তার মানসিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চান হার্দিক।

এই শো-তে গিয়েই শচীন এবং বিরাটের মধ্যে তুলনায় বিরাটকে এগিয়ে রেখেছিলেন হার্দিক এবং লোকেশ রাহুল। যা নিয়ে বিস্তর বিতর্ক হয়। এরপরই লোকেশ রাহুল এবং হার্দিককে শোকজ করা হয়।

মন্তব্য লিখুন :