আইপিএলের সেরা একাদশ প্রকাশ, জায়গা পাননি কোহলি-রোহিত

শেষ হয়ে গেছে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্রাঞ্চাইজি লীগ আইপিএল। চেন্নাইকে হারিয়ে মুম্বাই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে এবারের আসরে। সেই সাথে তারা গড়েছে নতুন রেকর্ড। কারণ সবচেয়ে বেশি চারবার চ্যাম্পিয়ন এখন তারাই।

আইপিএল শেষ হতেই প্রকাশ করা হয়েছে অফিসিয়াল সেরা একাদশ। যেখানে তরুণদের আধিক্য। তবে সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো এই একাদশে জায়গা হয়নি বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান বিরোট কোহলির। জায়গা পাননি চ্যাম্পিয়ন মুম্বাইর ক্যাপ্টেন রোহিত শর্মাও।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ওপেনিংয়ে সুযোগ পেয়েছেন। এর কারণ ১২ ম্যাচে ৬৯২ রান করেছিলেন তিনি।

ওয়ার্নারের সঙ্গী কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের লোকেশ রাহুল। এই ভারতীয় ১৪ ম্যাচে ৫৯৩ রান করে আইপিএলের ‘স্টাইলিশ প্লেয়ার’ নির্বাচিত হন।

তিনে রাখা হয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালসের ক্যাপ্টেন শ্রেয়স আইয়ারকে। মিডল অর্ডারে নেমে ভরসার পাশাপাশি ১৬ ম্যাচে ৪৬৩ রান করেছেন তিনি।

দিল্লি ক্যাপিটালসের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান ঋষভ পান্ট আছেন চারে। ১৬ ম্যাচে ৪৮৮ রান করেছেন। স্ট্রাইক রেট ছিল ১৬২.৬৬।

পাঁচ নম্বরে আসবেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। চেন্নাই সুপার কিংস রানার্স আপ হলেও ১৫ ম্যাচে ৪১৬ রান করেছেন তিনি।

স্বভাবই কলকাতা নাইট রাইডার্সের আন্দ্রে রাসেল আছেন একাদশে। ১৪ ম্যাচে ৫১০ রান করেন তিনি। স্ট্রাইক রেট ২০৪.৮১। ১১টি উইকেটও পেয়েছেন।

হার্দিক পান্ডিয়া থাকবেন না এটা হতেই পারে না। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে১৬ ম্যাচে ৪০২ রান করেছেন তিনি। আছে ১৪টি উইকেটও।

১৪ ম্যাচে ২০টি উইকেট পেয়েছেন রাজস্থানের শ্রেয়াস গোপাল। গড় ১৭.৩৫। ইকনমি রেট ৭.২২। লোয়ার অর্ডারে ক্যামিওগুলিও ছিল চমৎকার। তাই স্পিন অলরাউন্ডার হিসেবে তাকে রাখা হয়েছে একাদশে।

কাগিসো রাবাদা দিল্লি ক্যাপিটালসের অপর এক মুখ। ১২ ম্যাচে ২৫টি উইকেট পেয়েছেন তিনি। পেসের দায়িত্ব আছেন তিনিই।

যশপ্রীত বুমরা ছিলেন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের পেস স্তম্ভ। ১৬ ম্যাচে ১৯টি উইকেট পেয়েছেন। ডেথ বোলার হিসেবে তাকেই রাখা হয়েছে দলে।

১৭ ম্যাচে ২৬টি উইকেট নিয়েছেন তিনি চেন্নাইর ইমরান তাহির। গড় ১৬.৫৭। ইকনমি রেট ৬.৬৯। তাকে না রাখলে একাদশটাই অসম্পূর্ণ থাকতো।

মন্তব্য লিখুন :