যে ৩ দুর্বলতা বিশ্বকাপে ভোগাবে বাংলাদেশকে

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছে বাংলাদেশ। ২ জুন ওই ম্যাচে বাংলাদেশ জিতলেও বেশকিছু দুর্বলতা ধরা পড়েছে। সবচেয়ে বড় দুর্বলতা ধরা পড়েছে ফিল্ডিংয়ে। টাইগারদের একাধিক খেলোয়াড়ের ইনজুরিও বেশ ভুগিয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশের আরও একটি দুর্বলতা আছে।

ফিল্ডিং: এটা বরাবরই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা। মূলত বড় দলগুলোর সাথে বাংলাদেশের পার্থক্য গড়ে দেয় এই ফিল্ডিং। যেখানে বড় দলগুলো ফিল্ডিং করেই ২৫ থেকে ৩০ রান সেভ করে সেখানে ক্যাচ মিস করা বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়মিত দৃশ্য। শুধু তাই নয় বাংলাদেশের ফিল্ডারদের গতি ও থ্রো নিয়েও সমস্যা রয়েছে। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় বাংলাদেশিদের হাতে বল মেরেই রান নিয়ে নিচ্ছে ব্যাটসম্যানরা। এর কারণ থ্রোয়িংয়ের দুর্বলতা আর গতি না থাকা। ক্যাচের কথা তো নতুন করে না বলাই শ্রেয়।

যদিও বাংলাদেশ দলে বেশ কয়েকজন ভালো ফিল্ডার আছে। তবে টাইগাররা পিছিয়ে যায় বোলারদের কারণে। বরাবরই বাংলাদেশি বোলাররা ভালো ফিল্ডিং দিতে অক্ষম। তবে বিশ্বকাপ বড় মঞ্চ এখানে বাজে ফিল্ডিংয়ের কোনো জায়গা নেই। ভালো কিছু করতে হলে এই ভুল অবশ্যই শুধরাতে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ থেকে তাই টাইগারদের ভুলগুলো শুধরে নিতে হবে।

রানিং বিটুইন দ্যা উইকেট: এটিও বাংলাদেশের বড় একটি সমস্যা। বরাবরই বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা ক্ষিপ্র গতিতে রান নিতে অক্ষম। তাছাড়া অনেক সহজ ডাবল বাংলাদেশি প্রায়ই নেয় না। এখানে বোঝাপড়ার ঘাটিও রয়েছে। রয়েছে ফিটনেসের অভাবও। তবে এই সমস্যা দূর করতে হবে। তা না হলে বেশ ভালোই ভোগাবে।

ইনজুরি: বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন ইনজুরিতে আছেন সেটা সবার জানা। এর প্রভাব পড়েছে পারফর্মেও। ইনজুরির কারণে মাশরাফি পুরো রিদমে বল করতে পারেননি। তামিমকে দেখা গেছে বেশ সতর্ক হয়ে খেলতে। এখন দ্রুত তারা ইনজুরি থেকে সেরে উঠলেই বাংলাদেশের রক্ষা। কারণ সামনে আরও গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ রয়েছে টাইগারদের।


মন্তব্য লিখুন :