প্রাপ্য সম্মানটুকুও পেলেন না যুবরাজ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ভারতের কিংবদন্তী অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং। বা-হাতি এই ব্যাটসম্যানের ইচ্ছে ছিল বিশ্বকাপ খেলে অবসর নেবেন। তবে বিশ্বকাপ তো দূরের কথা বিদায়ের আগে ফেয়ারওয়েল ম্যাচও পাননি তিনি।

যুবরাজ সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন ২০১৭ সালের ৩০ জুন। এরপর আর তাকে দলেই ডাকেনি বিসিসিআই। মানে প্রায় ২ বছর ধরে দলের বাইরে তিনি। সামনে তাকে দলে আর ডাকা হচ্ছে না সেটা তিনি নিশ্চিত। তাই বিশ্বকাপের মাঝেই গত সোমবার তিনি অবসর ঘোষণা করেন।

একসময়ের সেরা ম্যাচ উইনারের সঙ্গে কি সঠিক ব্যবহার করল ভারত সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে ক্রিকেট প্রেমিদের মাঝে। একটা ফেয়ারওয়েল ম্যাচও কি পেতে পারতেন না যুবি? তাঁর প্রথম অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে এই প্রশ্ন করা হয়েছিল। যার উত্তরে মহারাজ বলেন, যুবির ফেয়ারওয়েল ম্যাচ দরকার ছিল বলে আমি মনে করি না। আমি এই ধরনের ফেয়ারওয়েল ম্যাচে একেবারেই বিশ্বাসী নই।

অবসরের সময়ে সাংবাদিক বৈঠকে যুবরাজ বলেন, আমি বোর্ডের কাউকেই বলিনি যে আমার ফেয়ারওয়েল ম্যাচ দরকার। আমাকে বলা হয়েছিল, ইয়ো ইয়ো টেস্টে ব্যর্থ হলে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ দেওয়া হবে। আমি ওদের বলেছিলাম, ইয়ো ইয়ো টেস্টে পাশ করতে না পারলে আমি নিঃশব্দে সরে যাব, ফেয়ারওয়েল ম্যাচের দরকার পড়বে না। আমি ইয়ো ইয়ো টেস্টে পাশ করেছিলাম। বাকিটা তো আর আমার হাতে নেই।

মানে বোঝাই যাচ্ছে আক্ষেপ নিয়েই অবসরের ঘোষণা দেন প্রায় ১২ হাজার রান ও ১৪৮ উইকেটের মালিক। ভারতীয়রা বলছেন শেষ সম্মানটুকু অন্তত দেওয়া উচিত ছিল ২০১১ বিশ্বকাপের মূল নায়ককে। তবে সে প্রশ্নের উত্তর আর কে দেবে?

মন্তব্য লিখুন :