বাংলাদেশকে উড়িয়ে দিল জিম্বাবুয়ে

ব্রেন্ডন টেলরের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশকে উড়িয়ে দিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

আগে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১৪২ রান তুলেছিল বিসিবি একাদশ। তাড়া করতে নেমে ১৬ বল হাতে রেখে জিতেছে জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশের শুরুটা ছিল উৎসাহ-জাগানিয়া। ৩.৫ ওভারেই ২৬ রান তুলে ফেলেছিল সাইফ-নাঈমের ওপেনিং জুটি। মাদজিভা এই জুটি ভাঙেন সাইফকে এলবিডব্লু করে। ৬.৫ ওভারে স্কোরবোর্ডে ৫৩ রান তুলে ফেরেন নাঈম। তাঁর ১৪ বলে ২৩ রানের ইনিংসটিতে ছিল ৫টি চারের মার। সাইফ ১৯ বলে ২১ করেছেন একটি বাউন্ডারি ও একটি ছক্কায়। দুই তরুণ-তুর্কি আফিফ হোসেন ও ইয়াসির আলীর ব্যাট থেকে এসেছে যথাক্রমে ১০ ও ৬।

সাব্বির ৩১ বলে ৩০ করেছেন। মুশফিক করেছেন ২৬ বলে ২৬। দুটির একটিকেও আদর্শ টি-টোয়েন্টি সিরিজ বলা যাবে না। সাইফউদ্দিনও শেষের দিকে ৭ বলের বেশি খেলতে পারেননি।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে ৩ উইকেট পেয়েছেন শন উইলিয়ামস। নেভিল মাদজিভা নিয়েছেন ২ উইকেট। এ ছাড়া একটি করে উইকেট তুলে নিয়েছেন কাইল জার্ভস ও টেন্ডাই চাতারা।

৮.১ ওভারের মধ্যে ৬৬ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর ৫৪ বলে ৭৮ রানের জুটি গড়ে দলকে জয় এনে দেন টেলর-মারুমা জুটি। ব্রেন্ডন টেলরের ব্যাট থেকে এসেছে অপরাজিত ৪৪ বলে ৫৭। অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা করে ২৩ বলে ৩১। আর শেষ দিকে ২৮ বলে অপরাজিত ৪৬ রানের ঝোড়ো ইনিংসে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন টিমিকেন মারুমা।

ব্যাট হাতে দলের ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্স ছিল গড়পড়তা। বোলিংয়ে বোলাররা রীতিমতো ব্যর্থ। কেবল আফিফই ভালো বোলিং করেছেন, ১৯ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। বাকি সবাই বেশ উদার। সাইফউদ্দিন ৩ ওভারে ২০ রান দিলেও কোনো উইকেট পাননি। আর যথাক্রমে ২ ওভার ও ১ ওভার বল করে গড়ে ১০-এর ওপরে রান দিয়েছেন ইয়াসিন আরাফাত ও আরিফুল হক। বাকি দুই বোলার আমিনুল ইসলাম ও শরিফুল হক ওভারপ্রতি গড়ে ৯-এর ওপরে রান দিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন :