হাসপাতালে ভর্তি কবি হেলাল হাফিজ

কবি হেলাল হাফিজ গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার (২১ মে) দিনগত রাত ১টার দিকে তাকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কবি হেলাল হাফিজের ভাতিজি রিনি আজ বুধবার বেলা ১২টার দিকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. মনজুর হোসেন এর অধীনে তিনি গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ভর্তি হওয়ার পর তাকে স্যালাইন দেয়া হচ্ছে। এখন তিনি গতকালের চেয়ে একটু ভালো আছেন।

তিনি আরও জানান, প্রথমে তিনি হাসপাতালে আসতে চাননি। তাকে জোর করেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম ও ল্যাবএইড হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. শামীম আহমেদের তত্ত্বাবধানে হেলাল হাফিজকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বাংলা কবিতার জনপ্রিয় এই কবি দীর্ঘদিন ধরেই চোখ, কিডনিসহ নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন। সম্প্রতি তার জ্বর হয়। সেখান থেকে অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হেলাল হাফিজের প্রথম কবিতার বই ‘যে জলে আগুন জ্বলে’। ১৯৮৬ সালে বইটি প্রকাশিত হওয়ার পর তুমুল জনপ্রিয়তা পান তিনি। বইটির অসংখ্য সংস্করণ হয়েছে। ২৬ বছর পর ২০১২ সালে তার দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘কবিতা একাত্তর’প্রকাশিত হয়। হেলাল হাফিজের অন্যতম জনপ্রিয় কবিতা ‘নিষিদ্ধ সম্পাদকীয়’কবিতার দুটি পংক্তি ‘এখন যৌবন যার মিছিলে যাবার তার শ্রেষ্ঠ সময়, এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাবার তার শ্রেষ্ঠ সময়’এখনও কবিতামোদী ও সাধারণ পাঠকের মুখে মুখে উচ্চারিত হয়। সাংবাদিক ও সাহিত্য সম্পাদক হিসাবে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় কাজ করেছেন হেলাল হাফিজ। ২০১৩ সালে তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার পান।

মন্তব্য লিখুন :