তনুশ্রীকে যৌন হেনস্তা, পুলিশের তদন্তে যা মিলল

#মিটু আন্দোলন নিয়ে বলিউডে তিনিই প্রথম খোলেন। তারপর সামনে আসতে থাকে বলিউডের অন্ধকার জগতের নানা কাহিনী। ভারতে মিটু আন্দোলনের মুখ অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত এবার জোর ধাক্কা খেলেন। প্রবীণ অভিনেতা নানা পটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া। সেই নানা পটেকরকে ক্লিনচিট দিল মুম্বাই পুলিশ।

তনুশ্রীর অভিযোগ, ‘নাতনি উতারো’ আইটেম গানের শুটিং চলাকালে হেনস্তা করেন নানা। সেট থেকে তিনি চলে যান। পরে ওই গানে তনুশ্রীর পরিবর্তে যোগ দেন রাখি সায়ন্ত। তাঁর গাড়ির ওপর হামলাও চালানো হয়। তবে পদ্মশ্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা নানা পাটেকার বরাবরই সব অভিযোগকে ‘মিথ্যা’ বলেছেন।

তনুশ্রীর আনা অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নামে মুম্বাই পুলিশ। এরপর আদালতে মুখবদ্ধ খামে রিপোর্ট জমা দেন তদন্তকারীর। সূত্রের খবর, সেই রিপোর্টে প্রবীণ অভিনেতাকে ক্লিনচিট দিয়েছে পুলিশ। কারণ নানার বিরুদ্ধে অকাট্য প্রমাণ মেলেনি। অভিনেত্রীর আইনজীবী নীতিন সতপুতে টাইমস নাওকে জানান, পুলিশের কাছ থেকে সরকারি ভাবে এমন তথ্য জানানো হয়নি। তবে তিনি জানান রিপোর্টে তেমন কিছু জানানো হলে তারা লড়াই করতে প্রস্তুত।

শুধু নানা পাটেকারই নয়, তনুশ্রীর অভিযোগ ছিল পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর বিরুদ্ধেও। এ অভিনেত্রী বলেছিলেন, ২০০৫ সালে ‘চকলেট : ডিপ ডার্ক সিক্রেটস’ ছবির শুটিং চলাকালে সহ-অভিনেতা ইরফান খানের সামনেই বিবেক তাঁকে পোশাক খুলে নাচতে বলেছিলেন।

তনুশ্রীর অভিযোগের পর বলিউডে তোলপাড় শুরু হয়। বেশিরভাগ তারকা অভিনেতা তনুশ্রীর পাশে দাঁড়ান। এরপর একে একে অনেকেই নিজেদের জীবনে ঘটে যাওয়া যৌন হেনস্তার কথা ফাঁস করেন। আলোচনায় আসে অনেক রথী-মহারথীর নাম।

মন্তব্য লিখুন :