স্ত্রীর পাশে চিরনিদ্রায় পলান সরকার

স্ত্রীর কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন একুশে পদক প্রাপ্ত ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ পলান সরকার। 

শনিবার (২ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউসা গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

আর আগে শুক্রবার (১ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের পূর্বপাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। পলান সরকার বার্ধক্যজনিত রোগে শয্যাশায়ী ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি ছয় ছেলে ও তিন মেয়ে রেখে গেছেন।

১৯২১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর নাটোরের বাগাতিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন পলান সরকার। তার আসল নাম হারেজ উদ্দিন। এলাকাবাসীর কাছে পলান সরকার পরিচিত ‘বইওয়ালা দুলাভাই’ হিসেবেও। জন্মের মাত্র পাঁচ মাসের মাথায় তার বাবা মারা যান। আর্থিক সংকটে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ার সময়ই লেখাপড়ায় ইতি টানতে হয় তাকে। আর এ জন্য পলান সরকার গ্রামে গ্রামে ঘুরে ছোট-বড় সবার দোরগোড়ায় বই পৌঁছে দিতেন। সামাজিকভাবে অবদান রাখার জন্য ২০১১ সালে তিনি পেয়েছেন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ সম্মান ‘একুশে পদক’।

মন্তব্য লিখুন :