মাছে ফরমালিন দেয়া হয়েছে কি না বুঝবেন যেভাবে

আজকাল মাছ কিনতে গেলে সবার একটিই ভয়, ফরমালিন দেয়া নয় তো? বিক্রিতাকে এমন প্রশ্ন করা হলে সদুত্তর পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। সাধারণ মানুষেরও বোঝার উপায় নেই ফামালিন দেওয়া কিনা। তবে বিশেষজ্ঞরা ফরমালিন দেওয়া মাছ চেনার জন্য কিছু উপায় বাতলেছেন। দেখে নেওয়া যাক উপায়গুলো।

কানকোর রং

যদি মাছের কানকোর রং লালচে মেরুন হয় তবে মাছ টাটকা। আর যদি তা কালচে মেরুন নয়, তবে বুঝতে হবে মাছ বাসি, ভিতরে ভিতরে পচন ধরেছে। তবে ফরমালিনের সাহায্যে কানকোর রং একই রকম করে রাখা যায়। তাই কানকো দেখালেই লাল রংয়ের মোহে ভুলবেন না।

পাখনা ও লেজ

মাছ কেনার সময় পাখনা বা লেজের দিকে নজর দেন। যদি দেখেন সেগুলো কোঁচকানো, কুঁকড়ে গিয়েছে তবে বুঝতে হবে মাছটা বাসি। তবে পাখনা দেখে অনেক সময় বোঝা যায় না। সেগুলো এমনিতেই কোঁকড়ানো থাকে। তাছাড়া মাছ বিক্রেতারা তা কেটেও রাখেন। তবে গোটা মাছ বা বড় মাছ কেনার সময় এই লক্ষণ দেখে অবশ্যই ভালো-মন্দ বুঝতে পারবেন।

চোখ

চোখ দেখে টাটকা মাছ চেনা সবথেকে ভালো। যদি মাছ ভালো থাকে তবে চোখ পরিষ্কার থাকবে। অন্যথায় তা ঘোলাটে হয়ে উঠবে।

মাছের প্রকৃতি

মাছ হাতে নিয়ে চাপ দিয়ে দেখুন। সাধারণ তাপমাত্রায় মাছে চাপ দিলে, তা হাতে নরম ঠেকবে না। কোনো জিনিসে চাপ দিলে যেমন তার উল্টো প্রতিক্রিয়া থাকে এক্ষেত্রেও তা হবে। আর যদি দেখেন পুরো জিনিসটা রাবারের মতো লাগছে, তবে বুঝবেন অবশ্যই মাছে ফরমালিন মেশানো আছে। রাসায়নিক দিয়েই সংরক্ষণ করা হয়েছে।

মাছি

রাসায়নিক মেশানো মাছে বিশেষ মাছি বসে না। সাধারণ মাছেই মাছি বসবে। তবে তারা অবশ্য টাটকা-বাসি তফাত করে না। কিন্তু নিশ্চিত হতে পারবেন যে, মাছি বসছে মানে সাধারণত কোনো রাসায়নিক মেশানো নেই।

মন্তব্য লিখুন :