কেন এবং কিভাবে খাবেন ইসবগুলের ভুষি

'ইসবগুল' খুবই সস্তা ও সহজলভ্য জিনিস। কিন্তু, এই সস্তা জিনিসটা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য কতটা উপকারী তা হয়তো কল্পনাও করতে পারবেন না। এই ভুসি মানুষকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি সারাবে বিশকিছু সমস্যা।

ইসবগুল খেলে যে সমস্যাগুলোর সমাধান পাবেন

কোষ্ঠকাঠিন্য: যারা ক্রনিক কোষ্ঠবদ্ধতায় ভুগছেন, তারা সকাল ও রাতে মাত্র দুই মাস খেলেই উপকার পাবেন। বাজারের যে কোনো পেট পরিষ্কারক ওষুধের চেয়ে ইসবগুল শতগুণে ভালো কাজ করে।

অর্শ্বরোগ: কোষ্ঠবদ্ধতা অর্শরোগের প্রধান কারণ। তাই অর্শরোগীদের নিত্যদিনের ওষুধ এই ইসবগুল। প্রতি রাতে পানিতে এক টিপ ইসবগুলের ভুষি দিয়ে খেয়ে শুতে যাওয়া অভ্যাস করুন, উপকার পাবেন।

আমাশয়: এটা ঠিক যে, ইসবগুল আমাশয়ের জীবাণু ধ্বংস করতে পারবে না, তবে বের করে দিবে। আমাশয়ের রোগীরা সকালে ও রাতে একবার শরবতের সাথে খাবেন।

প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া: এক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে ইসবগুল।

মাথাঘোরা রোগ: আপনার যদি মাথা ঘোরার সমস্যা থাকে বা হাত-পা জ্বালাপোড়া করে তবে সকাল ও বিকালে এক গ্লাস আখের গুড়ের শরবতের সাথে ইসবগুলের ভুষি মিশিয়ে এক সপ্তাহ খেলেই উপকার পাওয়া যাবে।

যেভাবে খাবেন প্রথমে ইসবগুল নিয়ে এক কাপ ঠাণ্ডা বা হালকা গরম পানিতে আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। এরপর, তাতে দু-তিন চামচ চিনি মিশিয়ে সকালে বাসিপেটে খেলে বা রাতে শোয়ার আগে খেলেই উপকার পাবেন।

মন্তব্য লিখুন :