ঘরোয়া উপায়ে দূর করুন ঘামাচি ও ত্বকের জ্বালাপোড়া

বাংলাদেশের উপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে মাঝারি তাপপ্রবাহ। এই অবস্থায় তীব্র গরমে নাকাল সাধারণ মানুষ। সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়তে হচ্ছে ঘরের বাইরে কাজ করা মানুষরা। একটু বের হলেই কড়া রোদের কারণে শরীর থেকে বের হচ্ছে ঘাম। যা থেকে তৈরি হচ্ছে ইনফেকশন।

এছাড়া সারা দিন গায়ে জ্বালাপোড়া। তা থেকে তৈরি হচ্ছে ঘামাচিসহ নানা গোটা। অনেকেই ঘামাচির সমস্যা থেকে বাঁচতে গায়ে পাউডার লাগান। তবে চিকিৎসকরা বলছেন পাউডার আমাদের ত্বকের গ্রন্থিগুলোর মুখ বন্ধ করে দেয়। তাতে আরও বাড়ে ঘামাচি।

তাহলে উপায়? খুবই সহজে ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই ধরনের এই অস্বস্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। রইল সেই দাওয়াই।

এক মুঠো নিমপাতা গুঁড়ো করে পেস্ট করে লাগিয়ে নিন ওই ঘামাচির জায়গায়। মিনিট কুড়ি পরে ওই জায়গা ধুয়ে ফেলুন। দিন চারেকে ফল পাবেন।

বেসনের সঙ্গে পরিমাণ মতো জল মিশিয়ে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি ঘামাচির স্থানে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জলে দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ঘামাচির অব্যর্থ দাওয়াই।

অ্যালোভেরা গাছের পাতার রস চিপে ঘামাচিতে লাগাতে পারেন। অথবা বাজারে এখন বিশুদ্ধ অ্যালোভেরা জেল পাওয়া যায়। সেগুলিও স্নান করে লাগাতে পারেন।

কাবলি ছোলা মিক্সিতে শুকনো গ্রাইন্ড করে নিন। তার পর জলে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে ১৫ মিনিট ঘামাচির অংশগুলিতে লাগিয়ে রেগে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

 চার চামচ মূলতানি মাটির সঙ্গে গোলাপজল মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে ঘামাচির অংশে লাগিয়ে রাখুন। ৩ ঘণ্টা পরে ধুয়ে ফেলুন।

মন্তব্য লিখুন :