জনবল নিয়োগ দেবে শিল্প মন্ত্রণালয়

জনবল নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়। বিভিন্ন গ্রেডে পাঁচ ধরণের শূন্য পদে সর্বমোট ৪৩ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। সব যোগ্য বাংলাদেশি নাগরিকরা বিভিন্ন পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম

শিল্প মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে ৫ পদে ৪৩ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে। এর মধ্যে সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে ১৪ জন, কম্পিউটার অপারেটর পদে ৪ জন, ক্যাশিয়ার পদে ১জন, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ৮জন এবং অফিস সহায়ক পদে ১৬ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে।

আবেদনের যোগ্যতা

সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে আবেদনের যোগ্যতা স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রি। সাঁটলিপিতে ইংরেজিতে প্রতি মিনিটে গতি ৭০ শব্দ ও বাংলায় ৪৫ শব্দ।কম্পিউটার টাইপিংয়ে গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজি ৩০ শব্দ ও বাংলা ২৫ শব্দ।কম্পিউটারে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত, ওয়ার্ড প্রসেসিং, ই-মেইল ও ফ্যাক্স পরিচালনায় দক্ষতা থাকতে হবে।

কম্পিউটার অপারেটর পদে আবেদনের যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক ডিগ্রি।কম্পিউটার টাইপিংয়ে গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজি ৩০ শব্দ ও বাংলা ২৫ শব্দ।

ক্যাশিয়ার পদে আবেদনের যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাণিজ্য বিভাগে স্নাতক। ওয়ার্ড প্রসেসিং ও কম্পিউটার পরিচালনায় দক্ষতা থাকতে হবে।

অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে আবেদনের যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ।কম্পিউটার টাইপিংয়ে গতি প্রতি মিনিটে ইংরেজি ২০ শব্দ ও বাংলা ২০ শব্দ।

অফিস সহায়ক পদে আবেদনের যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে মাধ্যমিক পাশ।

বয়সসীমা

আবেদনকারীর বয়সসীমা ন্যূনতম ১৮ থেকে অনূর্ধ্ব ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে বিভাগীয় প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩৫ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

বেতন স্কেল

বিভিন্ন পদের জন্য জাতীয় বেতন স্কেল-২০১৫ অনুযায়ী

সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটরের বেতন ১১,০০০-২৬,৫৯০টাকা

ক্যাশিয়ার পদের জন্য বেতন ১০,২০০-২৯,৬৮০টাকা

অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদের জন্য বেতন ৯,৩০০-২২,৪৯০টাকা এবং

অফিস সহায়ক পদের জন্য বেতন ৮,২৫০-২০,০১০টাকা

আবেদনের নিয়ম

আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনের (http://moind.teletalk.com.bd) মাধ্যমে আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে। আছে।অনলাইনে আবেদনপত্র যথাযথভাবে পূরণপূর্বক নির্দেশমতে ছবি এবং স্বাক্ষর আপলোডের পর আবেদনপত্র সাবমিশন সম্পন্ন হলে কম্পিউটারে ছবিসহ Application Previwe দেখা যাবে। নির্ভুলভাবে আবেদনপত্র সাবমিট করা হলে প্রার্থী একটি ইউজার আইডিসহ ছবি এবং স্বাক্ষরযুক্ত একটি অ্যাপ্লিকেন্টস কপি পাবেন। অ্যাপ্লিকেন্টস কপি ডাউনলোড ও প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে।

ইউজার আইডি নম্বরটি ব্যবহার করে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে টেলিটকের মাধ্যমে পরীক্ষা ফি জমা দিতে হবে। ফি বাবদ ১ থেকে ৪ নম্বর পদের জন্য ১০০ টাকা আর ৫ নম্বর পদের জন্য ৫০ টাকা ৭২ ঘন্টার মধ্যে জমা দিতে হবে।টাকা জমা না দেয়া পর্যন্ত আবেদন পূর্ণাঙ্গ হবে না।

টেলিটকে এসএমএস পাঠাতে প্রথমে ecs <স্পেস> UserID লিখে 16222 নম্বরে সেন্ড করতে হবে। পরে মোবাইল ব্যালেন্স থেকে ফি কেটে ফিরতি এসএমএসে UserID ও Password জানিয়ে দেয়া হবে। পরবর্তী ধাপের জন্য এটি সংরক্ষণ করতে হবে, যা দিয়ে পরীক্ষার প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে।

আবেদনের সময়সীমা

অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন ও ফি প্রদান শুরু হয়েছে ১৬ই মে ২০১৯ সকাল ৯টায়। শেষ সময় ৫ জুন, ২০১৯ বিকাল ৫ টা।

মন্তব্য লিখুন :