পার্লার নয়, ঘরে বসে ২০ মিনিটেই ফেরান ত্বকের জেল্লা

জেল্লাদার ত্বক পেতে কে বা না চায় বলুন। কারণ সৌন্দর্য প্রতিটি মানুষের কাছেই গুরুত্বপূর্ণ। তবে নিজের চেহাজার জেল্লা ধরে রাখতে বেশিরভাগ মানুষই ব্যবহার করে থাকে দেশি-বিদেশি প্রসাধনী। কিন্তু আপনি জানেন কী এসব প্রসাধনী আপনার ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি করছে?

কয়েকটি গবেষণায় উঠে এসেছে অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারে ত্বকের কোষ নষ্ট হয়ে যায়। ফলে ত্ক হারায় তার স্বাভাবিক জেল্লা। এছাড়াও প্রসাধনী ব্যবহারে সৃষ্টি হতে পারে ক্যান্সরের মতো মারাত্মক রোগও। তবে আপনি চাইলে ঘরে বসেই মাত্র ২০ মিনিটে পেতে পারেন জেল্লাদার ত্বক। কিন্তু কীভাবে? দেখে নিন সেই উপায়।

চন্দন-অ্যালোভেরা: এক চামচ চন্দন বাটা বা পাউডারের সঙ্গে সামান্য অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এর পর এই পেস্ট আলতো করে সারা মুখে, ঘাড়ে মেখে নিন। এই প্যাক ব্যবহার করলে মুখের কালচে দাগ এবং ট্যান কমাতে সাহায্য করে।

চন্দন ও গোলাপ জল: ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রেখে এর জেল্লা বাড়াতে চন্দন ও গোলাপ জলের প্যাক অত্যন্ত কার্যকরী! দু’চামচ চন্দন বাটা বা পাউডারের সঙ্গে এক চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে প্রতিদিন অন্তত একবেলা করে মুখে মাখুন। মিনিট পনেরো রেখে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বক হয়ে উঠবে জেল্লাদার, আকর্ষণীয়।

চন্দন এবং হলুদ: অল্প সময়ে ট্যান মুক্ত উজ্জ্বল, আকর্ষণীয় ত্বক পেতে চাইলে ব্যবহার করুন চন্দন এবং হলুদের মিশ্রণে তৈরি ফেস প্যাক। চন্দন আর হলুদের সঙ্গে আধা কাপ দুধ বা টক দই মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। তারপর লাগিয়ে ফেলুন মুখে। এর পর এই পেস্ট আলতো করে সারা মুখে, ঘাড়ে মেখে নিন। এই প্যাক ব্যবহার করলে মুখের কালচে দাগ এবং ট্যান কমাতে সাহায্য করে। ত্বক হয়ে উঠবে জেল্লাদার, আকর্ষণীয়।

চন্দন ও দুধ: এক কাপ দুধের সঙ্গে এক চামচ চন্দন বাটা বা পাউডার মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এর পর এই পেস্ট আলতো করে সারা মুখে, ঘাড়ে মেখে নিয়ে মিনিট পনেরো রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে সামান্য উষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন। প্রসঙ্গত, এই প্যাক সপ্তাহে অন্তত তিন দিন এক বেলা করে মাখতে পারলে ত্বক হয়ে উঠবে জেল্লাদার, আকর্ষণীয়।

চন্দন ও নিম: এক চামচ নিম পাতা বাটা বা নিমের পাউডারের সঙ্গে সম পরিমাণ চন্দন বাটা বা পাউডার জলের সঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এ বার ওই পেস্ট ধীরে ধীরে সারা মুখে, ঘাড়ে মেখে নিয়ে মিনিট পনেরো রেখে দিন। তার পর ঠান্ডা জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর পাশাপাশি ব্রণ-ফুসকুড়ির মতো সমস্যা থেকেও দ্রুত মুক্তি দেবে।

মন্তব্য লিখুন :