কলার খোসার অবিশ্বাস্য সব গুণ

কলার প্রচুর গুণ। কাঁচা হোক বা পাকা, নিয়মিত খেলে উপকার ছাড়া অপকার হয় না কারোর। কিন্তু জানতেন কি, এই ফলের খোসাও একেবারেই ফেলনা নয়! ত্বকের যত্নে, চামড়া-রুপোর জিনিস উজ্জ্বল করতে, দাঁতের হলদে ছোপ কমাতে যাকে বলে ধন্বন্তরি কলার খোসা।

এত যার গুণ তাকে কি অবহেলায় ফেলা দেওয়া উচিত? একেবারেই নয়। বরং কলার খোসার সদ্ব্যবহার করে আপাদমস্তক গ্ল্যামারাস হয়ে উঠুন।

ত্বকের যত্নে

ত্বকের দাগ-ছোপ-শুষ্কতা, ব্রণ, ফুসকুড়ি--- সহ সমস্ত সমস্যা গায়েব নিয়মিত কলারো খোসার নরম দিক গালে ঘষলে। এমনকি বলিরেখাও থাকবে না কলার খোসার কল্যাণে।

দাঁত সাদা করতে

নিয়মিত টানা কয়ক সপ্তাহ রোজ কলর খোসার নরম অংশ দাঁতে ঘষলে মুক্তোঝরা হাসি মিলবে। হলদেটে ছোপও গায়েব।

মাথাব্যথা কমাতে

মাথাব্যথা যেন যম যন্ত্রণা। ধটপট রেহাই পেতে। কলার খোসা কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে তারপর কপালের ওপর রাখুন। আস্তে আস্তে ব্যথা কমে স্বস্তি পাবেন।

প্রাথমিক চিকিৎসায়

পোকা-মাকড় কামড়েছে! সানর্বানে ঝলসে গেছেন! কুছপরোয়া নেই। কলার খোসার ভেতরের অংশ ঘষে নিন। তারপর ম্যাজিক দেখুন।

রুপো উজ্জ্বল হয় কলার খোসার।

গাছের সার হিসেবে খুব ভালো।

ক্ষতের ওপর কলার খোসা ঘষলে কমে যায় ঝটপট।

চামড়ার ব্যাগ, জুতো চকচকে করতে কলার খোসা অদ্বিতীয়।

মন্তব্য লিখুন :