খালেদা জিয়ার কারামুক্তি আদালতের বিষয়: আইনমন্ত্রী

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তির আদালতের বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

রবিবার (৪ নভেম্বর) বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে এক প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি।

গণমাধ্যমে এসেছে সমঝোতা হলে খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব। এ অবস্থায় আসলে মুক্তি সম্ভব কি না- জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, আমি একটা কথা বলতে পারি, সেটা হচ্ছে, খালেদা জিয়ার মামলায় তাকে আদালত সাজা দিয়েছেন। তার মুক্তির ব্যাপারে আদালতই সিদ্ধান্ত দেবেন।

ঐক্যফ্রন্টের দাবি অনুযায়ী নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার তারিখ পেছানো হবে কি না-জানতে চাইলে তিনি বলেন, উনারা ইলেকশন কমিশনের কাছে তফসিল পেছানোর অনুরোধ জানিয়ে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। এখন আমি যদি বলি, এটা সংবিধান পরিপন্থী, তাহলে তো এ চিঠিটা যাদের কাছে পৌঁছবে তাদের জবাব দেয়ার সুযোগ আর আমি দিলাম না।

তিনি বলেন, তফসিল পেছানো না পেছানো এটা ইলেকশন কমিশন বিবেচনা করবে এবং আমার বিশ্বাস সংবিধানে যেটা আছে সে অনুপাতে ইলেকশন কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।

নির্বাচনকালীন সরকারে ঐক্যফ্রন্টের কাউকে রাখার সিদ্ধান্ত আছে কি-না জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী কিন্তু ইতোমধ্যে বলেছেন, যে সরকারটা আছে সেই সরকারটাই চলবে। তার কারণ হচ্ছে যে ডেভেলপমেন্টের কাজগুলো শুরু করা হয়েছিল এ সরকারের আমলে সেটা যেন কোনো মতেই ব্যাহত না হয় সেটা তিনি অবশ্যই গুরুত্ব দেবেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক সাবেক বিচারপতি মুসা খালেদ, আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক। ৩৩ জন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটরা এ প্রশিক্ষণে অংশ নেন।



মন্তব্য লিখুন :