অরিত্রির আত্মহত্যা: ব্যবস্থা নিতে র‌্যাব-পুলিশকে চিঠি

ঢাকার ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী অরিত্রির আত্মহত্যার প্ররোচনাকারী হিসেবে তদন্ত প্রতিবেদনে প্রমাণিত হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষসহ তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে র‌্যাব ও পুলিশকে চিঠি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ বুধবার (৫ ডিসেম্বর) র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারকে ওই চিঠি পাঠায়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লিখিত নাজনীন ফেরদৌস, জিনাত আখতার এবং হাসনা হেনার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ কর হল।

এর আগে, নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রি অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার শিফট ইনচার্জ জিনাত আক্তার ও প্রভাতী শাখার শ্রেণি শিক্ষক হাসনা হেনাকে দোষী সাব্যস্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি। এরপর অভিযুক্ত তিন শিক্ষককে বরখাস্ত, এমপি বাতিলসহ তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়।

দুপুরে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সংবাদ সম্মেলনে তদন্ত প্রতিবেদনের সুপাশির ও এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপ তুলে ধরেন।

প্রসঙ্গত, পরীক্ষায় মোবাইল ফোনে নকল করার অভিযোগ এনে ভিকারুননিসার ছাত্রী অরিত্রির অভিভাবককে ডেকে অপমান করেন শিক্ষকরা। অভিভাবকের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেন অরিত্রি।

এ ঘটনায় ভিকারুননিসায় বিক্ষোভ চলছে। বুধবার শিক্ষর্থীরা তাদের ছয় দফা দাবি তুলে ধরেছেন।


মন্তব্য লিখুন :