নোয়াখালীতে গণধর্ষণ: আরও এক আসামি গ্রেপ্তার

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নে স্বামী-সন্তানকে বেঁধে রেখে চার সন্তানের জননীকে (৩৮) গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত আরও একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) ভোরে নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। এই ঘটনায় মামলায় মোট ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হলো। এদের মধ্যে ছয়জন এজাহারভুক্ত ও পাঁচজন ঘটনার সাথে জড়িত ছিল।

গ্রেপ্তারকৃত হেঞ্জু মাঝি (২৯) সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের মধ্যমবাগ্যা গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে। 

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আবুল খায়ের জানান, চাঞ্চল্যকর এই মামলায় পুলিশের তদন্ত এবং ভুক্তভোগী ও ইতোমধ্যে গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের জবানবন্দিতে ঘটনার সাথে জড়িতদের মধ্যে হেঞ্জু মাঝির নাম উঠে আসে। ঘটনার পর সে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে যাত্রীবাহী বাসে চালকের সহকারী হিসেবে কাজে যোগ দেয়। প্রযুক্তিগত সহযোগীতায় তার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে শুক্রবার ভোরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারের পর তাকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হবে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য লিখুন :