উপমন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে শ্রাবণী দিসাকে অপহরণ চেষ্টা

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের নাম ব্যবহার করে ঢাকার পরীবাগের একটি বাসা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী ইসলাম দিসাকে অপহরণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। 
রবিবার (১৯ মে)  দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতিতে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন দিসা।
দিসা বলেন, শনিবার (১৮ মে) দুপুরে রিমা নামে একজন ফোন করে বলেন, উপমন্ত্রী নওফেল আমার সঙ্গে কথা বলতে চান। এরপর উপমন্ত্রীর পরিচয় দিয়ে একজন ফোনে বলেন, তোমার ওপর হামলার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন। তুমি সন্ধ্যায় রিমার সঙ্গে চলে এসো। 
আমি তোমাকে আপার (প্রধানমন্ত্রী) কাছে নিয়ে যাবো।
তিনি বলেন, সন্ধ্যায় রিমা পরীবাগের মোতালেব প্লাজার বাসায় আসে তাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য। এরমধ্যে উপমন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি দিসা ও তার সঙ্গে থাকা অন্যদের জানান, তিনি রিমা নামে কাউকে পাঠাননি এবং ঘটনার কিছুই জানেন না। এ সময় সুযোগ বুঝে রিমা বাসা থেকে পালিয়ে যায়।
দিসা বলেন, আমাকে কৌশলে অপহরণের করার চেষ্টা করা হয়েছিল। আমি এখন নিরাপদ বোধ করছি না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিরাপত্তা চাইছি। কালকের ঘটনার পর থেকে আমি আতঙ্কিত।
এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণার পর পদবঞ্চিতরা মধুতে সংবাদ সম্মেলন করতে গেলে হামলার শিকার হন শ্রাবণী ইসলাম দিসাসহ অন্যরা। ওই হামলায় তিনি চোখে আঘাত পান।
দিসা আরও বলেন, রিমা নামে যে মেয়ে এসেছিল, সে বদরুন্নেছা কলেজ ছাত্রলীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট। তাকে আমি চিনি। তাকে গ্রেপ্তার করলে সব তথ্য বেরিয়ে আসবে। তাকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি।
তবে এ ঘটনার সাথে কারা জড়িত তিনি তা জানাতে পারেননি।

মন্তব্য লিখুন :