'জনগণের সঙ্গে প্রতারণা, বেঈমানি ও জোর করে চিরদিন ক্ষমতায় টিকে থাকা যায় না'

বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সমালোচনা করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জনগণের সঙ্গে প্রতারণা, বেঈমানি ও জোর করে চিরদিন ক্ষমতায় টিকে থাকা যায় না। 

অবিলম্বে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নিয়ে নির্বাচন দিন এবং জনগণের সরকার গঠন করুন। অন্যথায় এদেশের মানুষ অতীতে তাদের দাবি আন্দোলনের মাধ্যমে আদায় করেছে এবারও করবে।

মির্জা ফখরুল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার নিজ জেলা ঠাকুরগাঁওয়ের পৌরসভা মির্জা রুহুল আমিন মিলনায়তনে জেলা বিএনপি আয়োজিত কর্মী সম্মেলনে এসব কথা বলেন। জেলা বিএনপি’র সভাপতি তৈমুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যের মধ্যে জেলা, উপজেলা, থানা ও ইউনিয়ন বিএনপি ও তার বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশে এখন কোনো গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই এমন মন্তব্য করে মহাসচিব আরো বলেন, আজকে জনগণকে সভা, সমাবেশ ও স্বাধীনভাবে তাদের কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। সে কারণে তথাকথিত পার্লামেন্টে যে ক্ষুদ্র সুযোগ রয়েছে তা ব্যাবহার করার জন্যই বিএনপি তাদের নির্বাচিত চারজন এমপিকে সংসদে পাঠিয়েছে। দেশে যে সংকট চলছে তা শুধু বিএনপির নয়, সে সংকট দেশের সব মানুষের।

তিনি নিজ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আরো বলেন, হতাশা শেষ কথা নয়, প্রত্যেক রাতের পর নুত সূর্য, নতুন দিন আসে। তাই ধৈর্য নিয়ে সামনে এগোতে হবে, সংগঠিত হতে হবে এবং সংগঠনকে শক্তিশালী করলেই দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন আদায় করতে সক্ষম হবে।

দক্ষিণ আফ্রিকার মেনসেন মেনড্রেলা ও মালেশিয়ার আনোয়ার ইব্রাহিমের রাজনৈতিক জীবনের উদাহরণ দিয়ে ফখরুল আরো বলেন, তারা দীর্ঘদিন জেল, জুলুম, অত্যাচার, নির্যাতন সহ্য করেও বসে থাকেননি। তারা ধীরে ধীরে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সংগঠনকে মজবুত করে সামনে এগিয়েছিলেন বলেই তারা রাজনৈতিক ক্ষেত্রে সফলতা অর্জন করেছেন।

সুতরাং অন্ধের মতো চললে হবে না, বিশ্ব রাজনীতিকে বিশ্লেষণ করে সঠিক কৌশলে নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে জনগণের দাবি আদায় করে নিতে হবে।

মন্তব্য লিখুন :