রিকশাসহ ধীরগতির যানের জন্য আলাদা লেন করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

সারাদেশের সড়ক-মহাসড়কগুলো প্রশস্ত ও পুরু করার পাশাপাশি ধীরগতির যান চলাচলের জন্য আলাদা লেন করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

একইসঙ্গে এসব সড়কে বাস-বে নির্মাণ ও টয়লেটের ব্যবস্থা রাখার জন্য জমি অধিগ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় বিভিন্ন  প্রকল্প অনুমোদন দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী এসব নির্দেশ দেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, একনেক সভায় আজ মোট ১৩টি প্রকল্পে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ৭ হাজার ৭৪৪ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ৬ হাজার ৪১৪ কোটি ৯৭ লাখ টাকা, বৈদেশিক সহায়তা হিসেবে প্রকল্প সাহায্য পাওয়া যাবে ১ হাজার ১৪০ কোটি ৪৪ লাখ টাকা এবং বাস্তবায়নকারী সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় হবে ১৮৯ কোটি টাকা। অনুমোদিত প্রকল্পের মধ্যে ১০টি নতুন প্রকল্প এবং ৩টি সংশোধিত প্রকল্প রয়েছে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশের সড়ক-মহাসড়কগুলো প্রশস্ত ও পুরু করার নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়া তিনি ধীরগতির যান চলাচলের জন্য আলাদা লেন এবং মহাসড়কে বাস-বে তৈরির পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তারা যাতে টয়লেটসহ আনুসঙ্গিক প্রয়োজনীয় সুবিধাদি দিতে পারে সেজন্য জমি নির্ধারণের নির্দেশ দেন।

প্রধানমন্ত্রী ডাক বিভাগকে আধুনিকায়নের নির্দেশ দিয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেছেন, ডিজিটাল ডাকঘর প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে অনলাইনে আর্থিক সেবাসহ অন্যান্য সেবা কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে হবে। যাতে তারা নিজেরাই আয় করতে পারে। তা না হলে ডাক বিভাগ আগামীতে আর থাকবে না।

মন্তব্য লিখুন :