জাহালম কান্ডে দুদকের সব পক্ষের দায় রয়েছে

বিনা দোষে কারাভোগ করা জাহালমের বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), মামলার পাবলিক প্রসিকিউটরসহ (পিপি) সব পক্ষের মধ্যে সমন্বয়হীনতা ছিল বলে দুদকের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এমকামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এ প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

প্রসঙ্গত, সোনালী ব্যাংকের ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগে আবু সালেকের বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। এসব মামলায় ভুল ব্যক্তি জাহালমকে তলব করে দুদক। জাহালম নিজেকে আবু সালেক নন দাবি করলেও তা আমলে নেয়া হয়নি। পরে, ২০১৬ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারি নরসিংদীর একটি পাটকল থেকে জাহালমকে আটক করা হয়। এরপর, বিনা দোষে তিন বছর কারাভোগের পর হাইকোর্টের নির্দেশে মুক্তি পান জাহালম।

এ নিয়ে, গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচার হলে জাহালমকে জামিন দিতে হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে রুল জারি করে। এ ঘটনায় দুদক হাইকোর্টে প্রতিবেদন দেয়। প্রতিবেদনে জাহালমকে ফাঁসানোর মূল হোতা সোনালী ব্যাংকের কর্মচারি পলাতক মাইনুলকে চিহ্নিত করা হয়।

মন্তব্য লিখুন :