পঞ্চম ধাপের পৌরসভা নির্বাচনে ব্যাপক সহিংসতা

চলমান পৌরসভা নির্বাচনের পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট শুরু হয়েছে, বিরতিহীনভাবে চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

সকালে পরিস্থিতি শান্ত থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে সহিংসতার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত একজন নিহত হওয়ার খবর মিলেছে। সংঘর্ষ হয়েছে বেশ কয়েকটি এলাকায়।

নীলফামারী

সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন পাঁচজন।

রবিবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার মুন্সিপাড়ার ৫নং ওয়ার্ডে ভোট কেন্দ্রের বাইরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবকের নাম ছোটন অধিকার। তিনি উপজেলার মুন্সিপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

সৈয়দপুর থানার ওসি আবুল হাসনাত এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রাজশাহী

জেলার চারঘাট পৌরসভা নির্বাচনে একটি ভোটকেন্দ্রে দুই দফায় ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বেলা ১১টার দিকে সারদা থানাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। তবে এতে হতাহতের কোনও ঘটনা ঘটেনি।

ঘটনার সময় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী একরামুল হক ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জাকিরুল ইসলাম বিকুল ওই ভোটকেন্দ্রেই ছিলেন।

ককটেল বিস্ফোরণের পর রাজশাহীর চারঘাট পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী জাকিরুল ইসলাম বিকুল ভোট বর্জন করেছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা

নির্বাচনের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ ভোটকেন্দ্র এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

বেলা ১১টার দিকে সরকারি কলেজ ভোটকেন্দ্রের পাশের সড়কে কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় দুর্বৃত্তরা। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখা জানিয়েছে, ২৯ পৌরসভায় ২৯১টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১ হাজার ২৭০ জন, ৯৭টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৩৪২জন এবং ২৯টি মেয়র পদে ১০০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নির্বাচনে ৬২৫টি ভোটকেন্দ্রের ৪ হাজার ২২৯ ভোটকক্ষে ১৩ লাখ ৮৪ হাজার ১৬৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন। ভোটের মাঠে রয়েছে পুলিশ, এপিবিএন ও ব্যাটেলিয়ন আনসারের মোবাইল টিম ৯৭টি  ও স্ট্রাইকিং ফোর্স ২৯টি, র‌্যাবের ১০০টি মোবাইল টিম, প্রত্যেক পৌরসভায় ২ প্লাটুন বিজিবি আর উপকূলীয় পৌরসভা প্রতি কোস্টগার্ড ১ প্লাটুন।