যে অ্যাপগুলো আপনার ফোনের ক্ষতি করছে

স্মার্টফোন আছে আর তাতে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ থাকবে না সেটা হয় নাকি। বিশেষ করে নানান রকম গেমসসহ বিভিন্ন অ্যাপ দেখা যায় সবার মোবাইলে। তবে অনেকেই জানেন না এমন কিছু অ্যাপ আছে যা আপনার ফোনের ক্ষতি করছে। আসুন তাহলে জেনে নেই কোন অ্যাপগুলো মোবাইলের ক্ষতি করে।

ফাইভ নাইটস সারভাইভাল কারেক্ট :‌ গেম অ্যাপ। এই অ্যাপে হতে পারে মারাত্মক ক্ষতি।

ম্যাককুইন কার রেসিং গেম:‌ এটি থেকেও ফোনে হতে পারে মারাত্মক ক্ষতি। হ্যাং হয়ে যেতে পারে আপনার ফোন।

অ্যাডঅন পিক্সিমেলন:‌ এটিও একটি থ্রিডি গেম। ফোন ভালো রাখতে এটা ফোনে না ডাউনলোড করাই ভালো।

কুল ক্রাফ্ট:‌ ফোনে যদি মেমোরি যথেষ্ট না থাকে, তাহলে হতে পারে ভয়ানক সমস্যা। এই গেম আনইনস্টল করলে অনেকটা স্থান পাবে আপনার ফোন।

ড্র কাওয়াই:‌ এটিও একটি ফিচার গেম অ্যাপ। এটির মাধ্যমে ছোটখাটো আঁকার কাজ করা যায়। অ্যাপটি সময় কাটানোর জন্য ভালো, কিন্তু ফোনের জন্য খারাপ।

সাবওয়ে ব্যানানা রানওয়ে সার্ফার:‌ সাবওয়ে সার্ফারের মতোই একটি অ্যাপ এটি। এটিতেও রয়েছে নানা  সমস্যা।

ড্রয়িং লেসনস অ্যাংরি বার্ড:‌ এটি একটি ড্রয়িং অ্যাপ। এটি সুবিধার চাইতে অসুবিধাই বেশি এবং ফোনের জন্য ক্ষতিকর।

গার্লস এক্সপ্লোরেশন (‌লাইট)‌:‌ ২ডি গেমের অ্যাপ। এখন পর্যন্ত গুগল প্লে থেকে ডাউনলোড হয়েছে ৫ লক্ষ্যের মতো। তবে এটি স্পেসের সমস্যা হয়।

ইনভিজিবেল স্লিথার স্কিন:‌ এটি একটি গেমিং অ্যাপ। স্থানের সমস্যা তৈরি করে ফোনে। সাথে ফোনের হ্যাং এর সমস্যা তো আছেই।

ক্যান্ডি ক্রাশ সাগা: অনলাইন দুনিয়ায় সবচেয়ে বেশি খেলা গেমগুলির মধ্যে একটি ক্যান্ডি ক্রাশ সাগা। এভিজি জানিয়েছে, এই গেম মোবাইলের ইন্টারনাল স্টোরেজ অনেক কমিয়ে দেয়, ব্যাটারির চার্জ ফুরোয় দ্রুত এবং ডেটা কনসামশন অনেক কমে যায়।

পেট রেসকিউ সাগা: অনলাইনে এই গেমটিও খুব জনপ্রিয়। ক্যান্ডি ক্রাশের মতোই এই গেমটিও মোবাইলের ডেটা এবং স্টোরেজ কনসামশন অনেক কমিয়ে দেয়, ক্ষতি করে ব্যাটারির।

ক্ল্যাশ অফ ক্ল্যান্স: নেট দুনিয়ায় খুবই জনপ্রিয় এই মোবাইল গেম। কিন্তু এভিজির সতর্কবার্তা, এই গেম ব্যাটারির মারাত্মক ক্ষতি করে।

গুগল প্লে সার্ভিস: গুগল প্লে সার্ভিস থেকে সারা দিন নিত্য নতুন অ্যাপ্লিকেশন বা গেম ডাউনলোড করা হতে সাবধান। কারণ এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপটি আপনার মোবাইলের ইন্টারনাল স্টোরেজ তছনছ করে দেবে।

ওএলএক্স: আজকাল বেশিরভাগেরই মোবাইলে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করা থাকে। কিন্তু এভিজি জানাচ্ছে, এই অ্যাপটি অধিক মাত্রায় ব্যবহার করলে ব্যাটারির চূড়ান্ত ক্ষতি হয়, ইন্টারনাল স্টোরেজ কমে।

ফেসবুক: এভিজির তালিকায় ছ’নম্বরে রয়েছে ফেসবুকের নাম। এই অ্যাপটি স্মার্টফোন ব্যাটারির চার্জ দ্রুত কমিয়ে দেয়।

হোয়াট্‌সঅ্যাপ: সারা দিনই প্রায় এই অ্যাপটি ব্যবহার করেন গ্রাহকেরা। এভিজি জানাচ্ছে, এই মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যাটারিরও ক্ষতি করে।

লুকআউট সিকিউরিটি অ্যান্ড অ্যান্টিভাইরাস: এই সিকিউরিটি অ্যাপটি মোবাইলে খুবই জনপ্রিয়। অ্যাপটি ভাইরাস এবং ম্যালওয়ারের হানা থেকে মোবাইলকে বাঁচালেও, ব্যাটারির মারাত্মক ক্ষতি করে বলেই জানাচ্ছে এভিজি।

ওয়েদার অ্যান্ড ক্লক উইজেট: এভিজির তালিকায় ন’নম্বরে রয়েছে এই অ্যাপ। নেট অন থাকলেই চটজলদি আবহাওয়ার রিপোর্ট হাতে পাওয়া যায়। সঠিক সময়ও দেখিয়ে দেয় অ্যাপ। কিন্তু, মোবাইল ব্যাটারির জন্য এটি মোটেই ভাল নয়।

সলিটেয়ার:  এই অ্যাপটি ব্যাটারির জন্য ক্ষতিকর। এভিজি জানাচ্ছে, এই অ্যাপের বেশি ব্যবহারে মোবাইল ব্যাটারির আয়ু ধীরে ধীরে কমতে থাকে।

মন্তব্য লিখুন :