ব্যালন ডি’অর: পাল্টে দেয়া হয়েছিল মেসির পক্ষের ভোট

৩ ডিসেম্বর রাতে ব্যালন ডি’অর পুরস্কার ঘোষণা করে ফরাসি ম্যাগাজিন ‘ফ্রান্স ফুটবল’। এবারের পুরস্কারটি উঠে ক্রোয়েশিয়া ও রিয়াল মাদ্রিদের মিডফিল্ডার লুকা মদ্রিচের হাতে। মানে দীর্ঘ ১০ বছর পর এবার পুরস্কারটি মেসি-রোনালদোকে ছাড়া অন্য কেউ পেল।

এ পুরস্কার নিয়ে শুরুতেই প্রশ্ন তুলেন আতোয়ান গ্রিজম্যান। বিশ্বকাপজয়ী কেউ পুরস্কারটি না পাওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেন তিনি। এরপর মেসি সেরা তিনে না থাকায় ক্ষোভ উগড়ে দেন বার্সেলোনার কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে। শুধু এই দু’জনই নয় অনেক ফুটবল তারকাই এবারের পুরস্কার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

এই বিতর্কের মাঝেই বিস্ফোরক দাবি করে বসেছেন এক সাংবাদিক। ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর ওই সাংবাদিকের নাম লাসানা লিবরড। তিনি ব্যালন ডি’অরের জন্য ভোট দিয়েছেন এবার।

এই সাংবাদিকের দাবি, তার ভোটটি উল্টে দেওয়া হয়েছে। তিনি প্রথম চয়েজ হিসেবে মেসিকে ভোট দিলেও কর্তৃপক্ষ দেখিয়েছে তার ফার্স্ট চয়েজের ভোটটি গেছে গ্রিজম্যানের পক্ষে। অথচ গ্রিজম্যান তার সর্বশেষ পছন্দ ছিল।

এই সাংবাদিক যথাক্রমে ভোট দেন, লিওনেল মেসি, লুকা মদ্রিচ, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, মোহাম্মদ সালাহ ও আতোয়ান গ্রিজম্যানকে। তবে ব্যালন ডি’অর কর্তৃপক্ষ দেখায়, গ্রিজম্যান, সালাহ, রোনালদো, মদ্রিচ, মেসিকে তিনি যথাক্রমে ভোট দিয়েছেন।

গতকাল কোন খেলোয়াড় কত নম্বরে ছিল সেটি প্রকাশ হলে নিজের টুইটার একাউন্টে তার ভোটের বিষয়টি শেয়ার করেন লাসানা। তার দাবি শুধু তারই নয়, অনেক সাংবাদিকের ভোট পাল্টে দেয়া হয়েছিল। বার্সেলোনা তাদের নিজেদের ফেসবুক পেজে লাসানার পোস্টটি শেয়ার করেছেন। এরপরই ব্যালন ডি’অর নিয়ে নতুন করে বিতর্কের শুরু হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন :